cbn  

আবদুল মজিদ,চকরিা:

চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের উত্তর হারবাং গয়ালমারা আহমদিয়া স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী ও দাখিল মাদরাসা কালবৈশাখীর ঘূর্নিঝড়ে বিধ্বস্ত হয়ে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সৃষ্ট পরিস্থিতিতে সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারী) সকালে কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের পাঠদান বন্ধ ঘোষণা করেছে।

মাদরাসার সুপার মাওলানা আবু তৈয়ব জানান, সোমবার সকাল ৯টার দিকে আকর্ষ্মিকভাবে কালবৈশাখীর ঝড়ো হাওয়া শুরু হলে মাদরাসার একাডেমিক ভবন একেবারে বিধ্বস্ত হয়ে পড়ে। উড়ে গেছে মাদরাসার ছাউনী। ভেঙ্গে চুরমার হয়েছে আসবাবপত্র। ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে মাদরাসার চেয়ার টেবিল বেঞ্চসহ ও ছাউনীতে অন্তত লক্ষাধিক টাকার মালামাল নষ্ট হয়ে গেছে। মাত্র কয়েক মিনিটের ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে স্কুলটি মারাত্বক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় শিক্ষার্থীদের এখন খোলা আকাশের নিচে ক্লাস করতে হবে। তাছাড়া স্কুলের অবকাঠামো, আবাসিক ছাত্রদের বই বৃষ্টির পানিতে ভিজে নষ্ঠ হয়ে গেছে। উক্ত মাদরাসা ইবতেদায়ী সমাপনী ও জেডিসি পরীক্ষার ফলাফলে শতভাগ পাশসহ কৃতিত্ব অর্জন করে আসছে। ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠিত এ প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা ৫শতাধিক। প্রতিষ্ঠালগ্নে ৫ম শ্রেণি পযর্ন্ত ইবতেদায়ী শিক্ষা চালু হলেও ১ জানুয়ারী’১৬ সন থেকে চালু হয়েছে দাখিল পর্যায়ের শিক্ষা ব্যবস্থা। ক্ষতিগ্রস্থ মাদরাসা ভবন দ্রুত সংস্কার করা না হলে পাঠদান চরমভাবে ব্যহৃত হবে। মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলী আহমদ জানিয়েছেন, স্কুলের ক্ষয়ক্ষতির বিষয়টি নিয়ে তারা চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বরাবরে আবেদন করছেন। তিনি ঝড়ের কবলে পড়া মাদরাসা ভবনের দ্রুত সংস্কারসহ অবকাঠামো উন্নয়নে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।##

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •