সংবাদদাতাঃ
আসন্ন কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেননা বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার জেলা যুবলীগ নেতা হুমায়ুন কবির চৌধুরী হিমু।
গর্ভধারিণী মায়ের অনুরোধে এই মুহুর্তে তিনি নির্বাচনে আগ্রহী নন বলে গণমাধ্যমকর্মীদের নিশ্চিত করেছেন।
তাছাড়া নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক আইডিতে নির্বাচন না করার বিষয়ে খোলামেলা একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন হিমু।
পাঠকের উদ্দেশ্যে স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো।
সম্মানিত কক্সবাজার সদর উপজেলাবাসী।
সালাম ও নমস্কার।
আমি হুমায়ুন কবির চৌধুরী হিমু-মরহুম মুক্তিযোদ্ধা ছৈয়দুল আলম চৌধুরী (আলম মাস্টার) এর মেজ ছেলে।
আমার বড় ভাই মরহুম আলমগীর চৌধুরী হিরু, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন।
ছাত্রলীগের সভাপতি থাকা অবস্থায় মাত্র ২৫ বছর বয়সে তিনি কক্সবাজার সদর উপজেলায় ১৯৯০ সালে চেয়ারম্যান নির্বাচনে প্রতিদন্ধিতা করে তৎকালীন জেলার বড় বড় নেতাদের তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন আপনারা কক্সবাজার সদরের সাধারন মানুষের ভালবাসার ভোটে। এরপর আমাদের পরিবারের উপর নির্যাতনের অনেক ধাপ বয়ে গেল। আমরা তিন ভাই, অনেক মামলার আসামী হলাম, কারাভোগ করলাম। এসব থেকে আমার বাবাও তখন রেহাই পায় নাই। পরবর্তীতে ছোট ভাইকে ৮ বছর কারাগারে কাটাতে হলো। আবার ২০০৯ সালের উপজেলা নির্বাচনে আলমগীর চৌধুরী হিরু সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন করে। আপনাদের ভালবাসায় সহযোগিতা ও দোয়ায় আবার বিপুল ভোটে বিজয়ী হন। পরবর্তীতে ঘটনার পরিক্রমায় আমার ছোট ভাই বাবরকে অমানুষিক নির্যাতন করে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে হত্যা করা হয়। যা আমার বড় ভাই আলমগীর চৌধুরী হিরুকে অনেক আঘাত করে। আর এ আঘাত সহ্য করতে না পেরে, ঠিক এক বছরের মাথায় তিনিও মৃত্যুবরণ করেন। আমি একা হয়ে গেলাম। আমি গেল নির্বাচনে সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচনে প্রতিদন্ধিতা করলাম। আপনারা আমাকেও আদরে বুকে টেনে নিয়েছিলেন। আমি আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি জয় লাভ না করলেও আপনাদের ভোটে অনেকদুর এগিয়ে গিয়েছিলাম। আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে আপনাদের দোয়া আর আমার পরিবারের প্রতি ভালবাসা দেখে, আবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবো। কিন্তু এ পৃথিবীতে আমার শ্রেষ্ট সম্পদ আমার মা আমাকে নির্বাচন না করার জন্য বলে দিলেন। আমি মায়ের আদেশ মাথা পেতে নিয়ে, নির্বাচন থেকে সরে দাডিয়ে আপনাদের কাছে করজোড়ে ক্ষমা চাইলাম সদর উপজেলাবাসী। আমাকে ক্ষমা করবেন। আমাদের পরিবার আজীবন সদর উপজেলাবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞ থাকবে। যারা উপজেলা নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছে সবার জন্য অনেক অনেক দোয়া রইল। ভাল থেকো সদর উপজেলাবাসী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •