তাজুল ইসলাম পলাশ, চট্টগ্রাম:
চট্টগ্রামে বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনায় কমান্ডো অভিযানে নিহত পলাশ আহমেদ এর মরদেহের সুরতহাল ও ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। মরদেহটি এখন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের হিমঘরে রাখা হয়েছে। অভিভাবক বা স্বজনদের কেউ গিয়ে মরদেহ শনাক্ত করলে যাচাইবাছাই শেষে সেটা হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তারা লাশ গ্রহণ করবেননা।

এদিকে উড়োজাহাজ ছিনতাইয়ের চেষ্টার ঘটনার ২৪ ঘণ্টা পার হলেও এখনো মামলা হয়নি। পুলিশ বলছে, সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করার কথা রয়েছে।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের সহকারি কমিশনার (কর্ণফুলী জোন) জাহিদুল ইসলাম বলেন, সুরতহাল সম্পন্ন হয়েছে। সুরতহাল প্রতিবেদনে উল্লেখ আছে- লাশের নাভির উপরে ডানপাশে গুলিবিদ্ধ হওয়ার চিহ্ন আছে। এছাড়া শরীরে আর কোথাও আঘাতের কোনো চিহ্ন নেই।

নগরীর পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উৎপল বড়ুয়া বলেন, সুরতহাল শেষে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছিলাম। লাশের কোন মালিক না পাওয়া লাশটি বর্তমানে হিমাগারে রাখা হয়েছে। যদি কেউ আসে তাহলে যাচাইবাছাই সাপেক্ষে লাশটা তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে না পাওয়ায় সেখানে কী লেখা আছে তা জানাতে পারেননি ওসি। নিহত ব্যক্তির কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া আগ্নেয়াস্ত্র বা জব্দ করা অন্য কোনো আলামত পুলিশের কাছে এখনও হস্তান্তর করা হয়নি বলেও জানিয়েছেন ওসি।

একটি সূত্র জানিয়েছে, নিহত ব্যক্তির নাম-ঠিকানা পাওয়ার পর পতেঙ্গা থানা পুলিশের একটি টিম নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশে সোমবার দুপুরে রওনা দিয়েছে। নিহত পলাশের অভিভাবক ও আত্মীয়স্বজনদের নিয়ে তাদের চট্টগ্রামে ফেরার কথা রয়েছে।

রোববার (২৪ ফেরুয়ারি) সন্ধ্যায় বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজ (বোয়িং-৭৩৭) ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাই যাবার কথা ছিল। বিকেলে ঢাকা থেকে উড্ডয়নের পর উড়োজাহাজটি ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে। এসময় দু’জন কেবিন ক্রুকে জিম্মি করে রাখার কথাও বলা হয়।

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বিমানটি চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। তখন পাইলট-যাত্রীদের নিরাপদে নামিয়ে নেওয়া হয়। শ্বাসরুদ্ধকর উত্তেজনার মধ্যে সন্ধ্যার দিকে মাত্র আট মিনিটের কমান্ডো অভিযানে ছিনতাই কান্ডের অবসান ঘটে। সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমান সংবাদ সম্মেলন করে জানান, অভিযানে ছিনতাইকারী নিহত হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •