মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

গত ১৬ ফেব্রুয়ারি টেকনাফ হাইস্কুল মাঠে আত্মসমর্পণকারী আরো ৫ জন ইয়াবাবাজের জামিন নামন্ঞ্জুর করা হয়েছে। সোমবার ২৫ ফেব্রুয়ারি টেকনাফের জিআর মামলার দায়িত্বপ্রাপ্ত সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম জেরিন সুলতানার আদালতে ৫ জন এজাহারভুক্ত
আসামী জামিন আবেদন করে। আদালত চলাকালে জিআরও এস.আই আরমান জামিন আবেদনগুলো শুনানীর জন্য উপস্থাপন করলে বিচারক আবেদনের শুনানী শেষে তাদের জামিন নামন্ঞ্জুর করেন। কক্সবাজারের কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক (ভারপ্রাপ্ত) কাজী মোঃ রুবেল বড়ুয়া বিষয়টি সিবিএন’কে সোমবার নিশ্চিত করেছেন। সোমবার যাদের জামিন নামন্ঞ্জুর করা হয়েছে তারা হচ্ছে- মৃত এজাহার মিয়ার পুত্র এনামুল হক প্রকাশ এনাম মেম্বার (২৪), মুঃ মৌলভী আলী হোসেনের পুত্র মোঃ তৈয়ব (৪৬), হাজী খুইল্ল্যা মিয়ার পুত্র জাফর আহামেদ প্রকাশ জাফর (৪৩), মৃত হাছন আলীর পুত্র মোঃ হাশেম প্রকাশ আংকু, মোঃ জমিলের পুত্র মোঃ আইয়ুব। এনিয়ে মোট ২৪ জন আত্মসমর্পণকৃত ইয়াবাবাজের জামিন আবেদন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নামন্ঞ্জুর করা হলো। সোমবার আদালতে আসামীদের পৃথক ৩ টি জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানী করেন-এডভোকেট ম্মোহাম্মদ মোস্তফা, এডভোকেট আবদুল হালিম, এডভোকেট মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ্। এছাড়া গত ২৪ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার শহরের পশ্চিম লারপাড়ার বাসিন্দা ও নুর মোহাম্মদ আনছারীর পুত্র বহুল আলোচিত মোঃ শাহজাহান আনছারী, টেকনাফের মৃত নজির আহাম্মদের পুত্র সাহেদ কামাল প্রকাশ সাহেদ (৩২), আলী আহামদ প্রকাশ আলুগোলার পুত্র শামশুল আলম প্রকাশ শামশু মেম্বার (৩২), মোঃ হুসাইনের পুত্র মন্ঞ্জুর আলী (৩৫), মৃত ফজল আহম্মদের পুত্র মোঃ রাসেল (২৮), মৃত ফজল আহাম্মদের পুত্র নুরুল আমিন (৩৫) এবং মোহাম্মদ আলীর পুত্র আবদুল কুদ্দুসের জামিন আবেদন নামন্ঞ্জুর করা হয়। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি যাদের জামিন আবেদন নামন্ঞ্জুর হয়েছে তারা হলো-সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদি’র চার ভাই যথাক্রমে আবদুশ শুক্কুর (৩৩), আমিনুর রহমান প্রকাশ আমিন (৪৩), শফিকুল ইসলাম প্রকাশ শফিক (২৯), ফয়সাল রহমান (২৯)। এছাড়া একইদিন অন্যান্য যাদের জামিন হয়নি তারা হলো-মোঃ আবদুর রহমানের পুত্র মোঃ সাহেদ রহমান নিপু, আঃ গফফারের পুত্র মোজাম্মেল হক (২৮), মৃত ইব্রাহীম খলিলের পুত্র মারুফ বিন খলিল প্রকাশ বাবু, মৃত মোজাহের মিয়ার পুত্র মোঃ আলম (৪৫) এবং মৃত অংছেন ছা’র পুত্র মং অং থেইন প্রকাশ মমচি। ২০ ফেব্রুয়ারি যাদের জামিন আবেদন নামন্ঞ্জুর করা হয় তারা হলো-কালা মোহাম্মদ আলী’র পুত্র আবদুল আমিন (৩৪) ও মোহাম্মদ আলীমের পুত্র নুরুল আমিন (৩৭)। জিআর মামলা নম্বর ৯৮/২০১৯ (টেকনাফ) ও ৯৯/২০১৯ (টেকনাফ) মামলা দু’টিতে এসব আসামীদের জামিন চাওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •