♦ ডায়াবেটিস থেকে পরিত্রাণ পেতে সুশৃংখল জীবন-যাপনের কোন জুড়ি নেই

বার্তা পরিবেশক :

দিন দিন ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির সাথে চিকিৎসা সেবাও বাড়ছে। বাড়ছে ডায়াবেটিস সচেতনতাও। ডায়াবেটিস থেকে কেউ চিরতরে মুক্তি না পেলেও এমন রোগটি নিয়ে আতংক হবার মত তেমন কিছ্ইু নেই। তবে ডায়াবেটিস থেকে পরিত্রাণ পেতে নিয়মিত খাবার-দাবার থেকে শুরু করে সুশৃংখল জীবন-যাপনের কোন জুড়ি নেই বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন চিকিৎসক ও সুশিল সমাজের প্রতিনিধিরা।

কক্সবাজার ডায়াবেটিক সমিতির সহযোগিতায় টেকনাফের হ্নীলা গুলফরাজ-হাশেম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ডায়াবেটিক সেন্টারের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্টানে চিকিৎসক ও সুশিল সমাজের প্রতিনিধিরা এসব কথা বলেন।

টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের ফুলের ডেইল গ্রামের বাসিন্দা এবং প্রথিতযশা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ জামাল আহমেদ তাঁর প্রয়াত পিতা মৌলভী মোহাম্মদ আবুল হাশেম ও মা বেগম গুলফরাজের স্মরণে অন্যতম সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হ্নীলা গুলফরাজ-হাশেম ফাউন্ডেশন গড়ে তুলেন। নাফ নদী তীরের একটি নিভৃত এলাকায় এমন প্রতিষ্টানটি নিয়ে একদম নিরবেই গত একুশ বছর ধরে প্রয়াত পিতা-মাতার ্একজন যোগ্য চিকিৎসক সন্তান এলাকাবাসীকে নানা ভাবে চিকিৎসা সেবা দিয়ে চলেছেন। এমনকি গতকাল শুক্রবার একদিনেই ফাউন্ডেশন আয়োজিত চিকিৎসা ক্যাম্পে ৬ টি দরিদ্র রোগীর অপারেশন করা হয়্ তন্মধ্যে একজন হার্নিয়া রোগী এবং অপর ৫জন টিউমার অপারেশন করা হয়।

হ্নীলা গুলফরাজ-হাশেম ফাউন্ডেশন প্রতিষ্টানটি এবার মানুষের চিকিৎসা সেবার মাত্রা বাড়িয়ে এসেছে ডায়াবেটিস রোগীদের সেবায়। গতকাল শুক্রবার প্রতিষ্টানটি একটি ডায়াবেটিক সেন্টার উদ্ভোধন করেছে আনুষ্টানিকভাবে। এটি টেকনাফ সীমান্তের একমাত্র ডায়াবেটিক সেন্টার। সেন্টারটির উদ্ভোধন উপলক্ষে রোগীদের নিয়ে এক অবহিতকরণ ও মতবিনিময় সভাও অনুষ্ঠিত হয়।

৮ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ টায় টেকনাফের হ্নীলা গুলফরাজ-হাশেম ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে ডায়াবেটিক সেন্টারের উদ্বোধন করেন কক্সবাজার জেলা ডায়াবেটিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ। এ উপলক্ষে আয়োজন করা হয় মেডিকেল ক্যাম্পেরও।

সেই সাথে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন ফাউন্ডেশন সভাপতি সফিক আহমদ বি,কম। ফাউন্ডেশন পরিচালনা কমিটির সদস্য কাইসার উদ্দিন আহমদের পরিচালনায় ক্যাম্পে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার জেলা ডায়াবেটিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন গুলফরাজ হাশেম ফাউন্ডেশনের নপ্রতিষ্ঠাতা ও দক্ষিণ চট্টলার বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ জামাল আহমেদ।

অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিস্ট সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ বলেন, ডাঃ জামাল আহমেদ অনেক বড় চিত্তের অধিকারী বলেই এতদিন ধরে নিরবে মানুষের সেবা দিতে পারছেন। তিনি ডায়াবেটিক সমিতির প্রতিষ্টাতা ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিমের কথা স্মরণ করে বলেন, ডাঃ ইব্রাহিম ছিলেন মানব সেবার একজন পথিকৃৎ।

অনুষ্টানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার ডায়াবেটিক সমিতির সদস্য আলহাজ¦ মোঃ নুরুল কবির, কক্সবাজার ডায়াবেটিক হাসপাতালের জ্যেষ্ট চিকিৎসক এম নকরেক, ডাঃ মোঃ মুসা, ডাঃ মুফিজুল ইসলাম তালুকদার, গুলফরাজ হাশম ফাউন্ডেশনের সদস্য ডাঃ আসিফ খান, ডাঃ মুজিবুল হক, গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, তরুন রাজনীতিবিদ মাহবুব মোরশেদ প্রমুখ। উক্ত ডায়াবেটিক ক্যাম্প ও সভায় প্রত্যন্ত এলাকার ডায়াবেটিস্ আক্রান্ত নারী-পুরুষ রোগীরা অংশ-গ্রহণ করেন। এতে বক্তারা ডায়াবেটিস নিরাময় বা নিয়ন্ত্রণে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি নিয়ে অবহিত করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •