মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

মহেশখালী উপজেলার লাল মোহাম্মদ সিকদার পাড়ার শিশু ফাতিমা। নয় বছর। চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী। দিন দিন এই শিশুটির দৃষ্টিশক্তি কমে আসছে। এভাবে চোখের রোগে ভূগতে ভূগতে শিশুটি চোখে এখন খুব একটা আর দেখতে পায়না। স্থানীয়ভাবে ফাতিমার চিকিৎসা করা হলেও ক্রমান্বয়ে তার চোখের দৃষ্টিশক্তির অবনতি হচ্ছিল। চিকিৎসকেরা ফাতিমার চোখের উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারতে নিয়ে দ্রুত চিকিৎসা করার পরামর্শ দেন। কিন্তু তার দরিদ্র বাবার পক্ষে ভারতে গিয়ে ফাতিমার চোখের চিকিৎসা করানোর খরচ বহন করা কোন অবস্থাতেই সম্ভব নয়। তাই বলে তো শিশুটিকে অন্ধত্বের দিকে আর ঠেলে দেয়া যায় না।

ফাতিমার এ আর্থিক দুর্গতির কথা কক্সবাজার জেলা প্রশাসন জানতে পেরে শিশুটির পাশে দাঁড়ায়। বুধবার ৬ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ভারতে ফাতিমার চিকিৎসার জন্য জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন অনুদানের টাকা প্রায় দৃষ্টিহারা ফাতিমার হাতে তুলে দেন। ভারতে চোখের চিকৎসার জন্য আর্থিক সুবিধা পেয়ে ফাতিমা ও তার পরিবার খুবই খুশী। এসময় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আশরাফুল আফসার, মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ভারতে ফাতিমার দ্রুত চিকিৎকার ব্যবস্থা হউক। ভারত থেকে চিকিৎসা নিয়ে ফাতিমা তার চোখের দৃষ্টিশক্তি ফিরে পাক, পূর্ণ সুস্থ হয়ে ফিরে আসুক আমাদের মাঝে, এই প্রত্যাশা ও তার প্রতি দোয়া রইল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •