মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

টেকনাফ মডেল থানার সাব ইন্সপেক্টর (এসআই) মোঃ শরিফুল ইসলাম (নিরস্ত্র) সাহসিকতায় বীরত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ পুলিশের মর্যাদাপূর্ণ পদক পিপিএম (প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল) পেয়েছেন। পুলিশ সপ্তাহ ২০১৯ উপলক্ষ্যে গত সোমবার ৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকা রাজারবাগ পুলিশ সদর দপ্তরের প্যারেড মাঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে নিজে এসআই মোঃ শরিফুল ইসলামকে (বিপি: ৮৪০৩০৬৪৩৫৭) কে এই গৌরবময় পদক প্রদান ও ব্যাজ পরিয়ে দেন। এর আগে ২৯ জানুয়ারি কক্সবাজারের স্বনামধন্য পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন সহ সারাদেশে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে সর্বমোট ৩৪৯ জন বিপিএম ও পিপিএম পুরস্কারের জন্য চুড়ান্তভাবে মনোনীত করা হয়। কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন (বিপি: ৭৫০৫১০৫০৭৯) সহ জেলা পুলিশের আরো ৪ জন কর্মকর্তা এই সম্মানজনক পদক পেয়েছেন। জেলা পুলিশের পদকপ্রাপ্ত অন্যান্যরা হলেন- টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ (বিপি: ৭২৯৫০৮৪৪৪২) বিপিএম (সাহসিকতা), কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি ফরিদ উদ্দিন খন্দকার (বিপি: ৬৮৯৮০৫৩৫৪৮) পিপিএম (সাহসিকতা), টেকনাফ মডেল থানার এসআই (নিরস্ত্র) রাসেল আহামদ (বিপি: ৮৪১৩১৫৭৮১২) পিপিএম (সাহসিকতা)।
টেকনাফ মডেল থানার এসআই মোঃ শরিফুল ইসলাম ৬ মাসের বিভাগীয় প্রশিক্ষণে বর্তমানে টাঙ্গাইল পুলিশ একাডেমীতে রয়েছেন।বাংলাদেশ পুলিশের গৌরবময় এই পদক নেয়ার জন্য তিনি ঢাকা এসে পদক গ্রহনের আনুষ্ঠানিকতা সেরে বুধবারই তিনি টাঙ্গাইল ফিরে গেছেন। পিপিএম পদক প্রাপ্তির পর এসআই মোঃ শরিফুল ইসলাম এ প্রতিবেদকের কাছে মুঠোফোনে তাঁর প্রতিক্রিয়ায় মহান আল্লাহতায়লার কাছে শোকরিয়া জ্ঞাপন করে বলেন- সাহসিকতা ক্যাটাগরিতে তাঁকে এ বিরল পদক প্রদান করে তাঁর ত্যাগ ও কর্মের যথার্থ মূল্যায়ন করা হয়েছে। এতে তাঁর কাজের গতি ও উৎসাহ আরো বাড়বে বলে এসআই মোঃ শরিফুল ইসলাম দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এসআই মোঃ শরিফুল ইসলাম এই সম্মাননা তাঁর কর্মজীবনের এক মাইলফলক হিসাবে উল্লেখ করে বলেন-এই মূল্যায়ন তাঁর দায়িত্ব ও কর্তব্যকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। তিনি রাষ্ট্রীয় পদক প্রাপ্তির এই শুভলগ্নে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের সকল কর্মকর্তা ও সদস্য, টেকনাফের সকল সম্মানিত নাগরিকদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এসআই মোঃ শরিফুল ইসলাম তাঁকে প্রদত্ত এই বিরল সম্মানের জন্য চট্টগ্রাম রেন্ঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক (বিপিএম-পিপিএম), কক্সবাজারের স্বনামধন্য পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন (বিপিএম) টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ (বিপিএম-বার) সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। পিপিএম পদক প্রাপ্ত এসআই মোঃ শরিফুল ইসলাম ২০০৩ সালে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। তাঁর গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর জেলার মতলব (দক্ষিণ) উপজেলায়। তিনি ২০০৬ সালে নাজমা ইসলামের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। শরীফ ও নাজমা দম্পতি তিন পুত্র সন্তানের গর্বিত মাতা-পিতা। এসআই মোঃ শরিফুল ইসলাম কর্মজীবনের আরো সাফল্যের জন্য সবার কাছে দোয়া ও আন্তরিক সহযোগিতা চেয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •