সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :

‘সন্ধানী ‘ মেডিকেল ও ডেন্টাল ছাত্রছাত্রী দ্বারা পরিচালিত একটা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। ১৯৭৭ সালের ৫ ই ফেব্রুয়ারি ঢাকা মেডিকেল কলেজে ৬ জন তরুণের হাত ধরে জন্ম লাভ করে মানবসেবায় ব্রতী এই সংগঠনের। পরবর্তীতে এটি ছড়িয়ে পড়ে দেশের প্রতিটি সরকারি -বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে। সন্ধানীর কার্যক্রমের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, স্বেচ্ছায় রক্তদানে মানুষকে উদ্বুদ্ধকরণ, মরণোত্তর চক্ষুদান, স্বল্পমূল্য ভ্যাক্সিনেশন, দুস্থ রোগীদের ঔষধ প্রদান এবং অসহায় শীতার্তদের শীতবস্ত্র বিতরণ। এছাড়াও দেশের মানুষের বিপর্যয়ে সন্ধানী স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে সবসময় পাশে থাকে। সন্ধানীর হাত ধরেই বাংলাদেশে প্রথম স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী পালন করা হয়। মানবসেবায় সন্ধানীর অবদানস্বরূপ সন্ধানী লাভ করে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার “স্বাধীনতা পুরস্কার”। ৫ই ফেব্রুয়ারি সারাদেশে সন্ধানীর ইউনিটসমূহ ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করছে। সন্ধানী কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ইউনিট প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে নানা কর্মসূচীর আয়োজন করে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল বিনামূল্যে ব্লাড গ্রুপিং, স্বেচ্ছায় রক্তদান, হাসপাতালের অসহায় রোগীদের মাঝে ঔষধ বিতরণ। এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে বর্ণাঢ্য র‍্যালী এবং প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. সুবাস চন্দ্র সাহা সহ বিভাগীয় প্রধান, সকল শিক্ষকমণ্ডলী এবং সকল সন্ধানীয়ান ও নবাগত মেডিকেল ছাত্রছাত্রীরা। সন্ধানী কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ইউনিটের সভাপতি নুরুল আফছার আশিক ও সাধারণ সম্পাদক মো ইমরান উপস্থিত সকলের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং নবাগত সন্ধানীয়ানদের সন্ধানীর আদর্শ ও নীতি ধারণ করে পড়ালেখার পাশাপাশি অসহায় মানুষের সেবায় এগিয়ে আসার আহবান জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •