প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন মামলায় অভিযুক্ত ১২ জনকে আটক করেছে। গত ৩ ফেব্রুয়ারী সকাল হতে ৪ ফেব্রুয়ারী সকাল পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ খায়রুজ্জামান খাঁন এর নেতৃত্বে, পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্ এ্যান্ড কমিউনিটি পুলিশিং),  মোঃ মাইন উদ্দিন, পুলিশ পরিদর্শক (ইন্টেলিজেন্স)  মোহাম্মদ আরিফ ইকবাল,এসআই রাজিব চন্দ্র, এসআই প্রদীপ চন্দ্র,এসআই মোঃ রাশেদুল কবির,এসআই তৈমুর ইসলাম,এসআই সনৎ বডুয়া,এসআই সনজীত চন্দ্র নাথ,এএসআই দ্বীন মোহাম্মদ,এএসআই লিটন মিয়া, সঙ্গীয় ফোর্স এবং ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান খাঁন সহ কক্সবাজার সদর মডেল থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ১২ জন আসামীকে গ্রেফতার করেন কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ।
গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন-
রানা চৌধুরী,পিতা-নেপাল চৌধুরী,সাং-সুখছড়ি,থানা- লোহাগড়া,জেলা- চট্টগ্রাম,বর্তমানে-শান্তি মেচ লাল দিঘীর পশ্চিম পাড়,থানা ও জেলা-কক্সবাজার,মোশারফ হোসেন,পিতা-মৃত কবির আহমদ,সাং- দক্ষিন টেকনাইফ্যারছাড় ৫নং ওয়ার্ড,থানা ও জেলা- কক্সবাজার, দেলোয়ার হোসেন,পিতা- আবুল হোসেন,সাং-দক্ষিন রুমালিয়াছড়া,থানা ও জেলা –কক্সবাজার, অজয় ধর,পিতা- দিলীপ ধর,সাং- তেচ্ছিপুল পাড়া সুধন ডাক্তারের বাড়ীর পাশে,থানা- রামু,জেলা-কক্সবাজার,নুর কায়দার,স্বামী- রশিদ আহম্মদ,সাং- পশ্চিম লারপাড়া,থানা ও জেলা-কক্সবাজার, আবুল হাশেম,পিতা- মৃত ছগীর আহম্মদ,সাং- বাহারমিয়ার ঘোনা ৭নং ওয়ার্ড,থানা ও জেলা- কক্সবাজার, মোঃ আলমগীর,পিতা-মৃত আবু সামা,সাং- উত্তর মাইজ পাড়া,ঈদগাঁও,থানা ও জেলা-কক্সবাজার,মোঃ জিয়াউর রহমান,পিতা- মৃত করিম,সমিতি পাড়া ১নং ওয়ার্ড,থানা ও জেলা- কক্সবাজার,নেজাম উদ্দিন,পিতা- মৃত নজির আহমদ,সাং- ছনখোলা পশ্চিম পাড়া ১নং ওয়ার্ড,থানা ও জেলা-কক্সবাজার,মনির উদ্দিন,পিতা-নুরুল হক,সাং- ছনখোলা,পশ্চিম পাড়া,থানা ও জেলা-কক্সবাজার,মোঃ আলমগীর,পিতা- আবুল বশর,সাং-হাটখোলা পাড়া,থানা-লোহাগড়া,জেলা-চট্টগ্রাম,মোঃ সেলিম,পিতা- মোঃ সোলতান,সাং-বাদশা ঘোনা,১ ইয়াছমিন ম্যানশন ৯নং ওয়ার্ড,থানা ও জেলা-কক্সবাজার,
কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ খায়রুজ্জামান খান তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এলাকার আম জনতা ও পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তার নিশ্চিতের লক্ষ্যে মামলায় অভিযুক্ত ও চিহিৃত অপরাধীদের বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •