নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজারে জাতীয় ঘুড়ি উৎসবের পর্দা উঠছে শুক্রবার। বাংলাদেশ ঘুড়ি ফেডারেশনের উদ্যোগে ১-২ ফেব্রুয়ারি এই উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার সকাল ১০টায় ‘চাই নির্মল সৈকত ও সমুদ্রের কক্সবাজার’ বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বিকাল ৩টায় সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে জাতীয় ঘুড়ি উৎসবের আনুষ্ঠিক উদ্বোধন হবে।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ হাসান রাসেল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন চীনের রাষ্ট্রদূত মিঃ ঝাং ঝু। এবারের ঘুড়ি উৎসবে প্রায় ১৫০জন ঘুড়িয়াল অংশ নেবে। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকালে কক্সবাজার প্রেস ক্লাবে প্রেস ব্রিফিং করে বাংলাদেশ ঘুড়ি ফেডারেশন।

ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মৃধা বেনু জানান, এবারের উৎসবে বৈচিত্র্যপূর্ণ মনলোভা সব ঘুড়ি ছাড়াও থাকছে দেশীয় ঐতিহ্যের আদি উপাদান ২৫ ফুট দীর্ঘ বিরাট টেরাকোটা টেপা পুতুল, নৃত্যরত বিশাল হাওয়াই মানুষ, ভয়ঙ্কর ড্রাগন, আকর্ষণীয় চরকি, আলোক সজ্জিত ঘুড়ি, ফানুস, বাংলার বাঘ ছানার নৃত্য ও আতশবাজির চমক। মহাঘুড়ি উড্ডয়ন দিয়ে উৎসব শুরু হবে এবং বাংলা বৈরী দানবদহনের মধ্য দিয়ে ২ ফেব্রুয়ারী শেষ হবে জমকালো উৎসব। এবারের উৎসবে বাংলাদেশের পরিবেশ, কক্সবাজারের পরিবেশ ও সমুদ্র নিয়ে আয়োজক সংগঠনের সঙ্গে আরও যুক্ত হয়েছে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) ও গ্রীন ভয়েজ। সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সদস্য মোঃ মাসুম খান ও মোঃ ইসমাঈল হোসেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •