সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
হুফফাজুল কুরআন সংস্থা কক্সবাজার এর আয়োজনে ৮ ম হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতা ও শানদার ক্বেরাত মাহফিল সম্পন্ন হয়েছে।
বুধবার (৩০ জানুয়ারি) ঐতিহ্যবাহী শহীদ দৌলত ময়দানে বিভিন্ন হেফজখানার ছাত্রদের অংশ গ্রহণে সকাল থেকে শুরু হয় প্রতিযোগিতা। বিকাল থেকে রাত নাগাদ চলে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত ক্বারীদের পবিত্র কুরআনের তিলাওয়াত। মাহফিলের বাড়তি আকর্ষণ ছিলো শিশু ক্বারীদের তিলাওয়াত। এতে কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকার ক্বারীরা অংশ নেয়। বাদ মাগরিব থেকে চট্টগ্রাম ও ঢাকার বেশ কয়েকজন ক্বারী তিলাওয়াত করেন। চিরচেনা পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে কুরআন প্রেমিকদের মিলনমেলা বসে। লওহে মাহফুজের গ্রন্থের আয়াতের তিলাওয়াত শুনতে পঙ্গপালের মতো ছুটে যায় মুমিনেরা। কুরআনের সুরে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে শহরের অলিগলি।
হুফফাজুল কুরআন সংস্থার মহতি আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার পৌরসভা মেয়র মুজিবুর রহমান। তিনি সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে মঞ্চে ওঠেন। এসময় একজন ক্বারী তিলাওয়াত করছিলেন। কালামুল্লাহর তিলাওয়াত ও কুরআনের মনোমুগ্ধকর আয়োজন দেখে মুগ্ধ হন পৌর মেয়র। এ সময় তিলাওয়াত করেন কাতারে প্রতিযোগিতায় চান্স পাওয়া কক্সবাজারের শিশু ক্বারী রিফাত বিন আবদুর রশীদ। ছোট্ট ক্বারী রিফাতের সুললিত কন্ঠে তিলাওয়াতে শ্রোতাদের চোখে অশ্রু বিসর্জন হতে দেখা যায়। মেয়র মুজিবুর রহমান কান পেতে শুনেন রিফাতের তিলাওয়াত। তিলাওয়াত শেষে করে ওঠতেই কক্সবাজারের গৌরব কুরআনের পাখি রিফাতকে বুকে জড়িয়ে নেন। মাথায় হাত বুলিয়ে দোয়া করেন। এরপর একে একে অনেকে তিলাওয়াত করেন।
বাদ এশা সমাপনি অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়ার মুফতী ও মুহাদ্দীছ আল্লামা মুফতী শামশুদ্দীন জিয়া। আন্তর্জাতিক ক্বেরাত সম্মেলন সংস্থা বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হাফেজ মুহাম্মদ তৈয়ব জেলা হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় প্রধান বক্তা ছিলেন। বিশ্ববিখ্যাত ইসলামী বিদ্যাপীঠ জামিয়া আজহার মিশরের সহকারী প্রফেসর শায়খ ক্বারী ড. উসামা আল হাওয়ারীসহ দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত ক্বারীদের পদচারণায় আয়োজনকে প্রাণবন্ত করে তুলে। আয়োজক কমিটির আহবায়ক মাওলানা হাফেজ মুবিনুল হক ও সদস্য সচিব হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ ইউনুস ফরাজীর সার্বিক তদারক ও দিক নির্দেশনায় আয়োজনের সফল সমাপ্তি হয়।
কুরআনের অনুষ্ঠানকে সাফল্যমণ্ডিত করতে যারা বিভিন্নভাবে সহায়তা করেছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন- সমাজসেবক গোলাম কিবরিয়া, ক্বারী সাইফুল্লাহ, হাফেজ রিদওয়ানুল কবীর, হাফেজ মিছবাহ উদ্দিন, হাফেজ আমীনুর রশিদ, হাফেজ নুরুল্লাহ, হাফেজ ডা. ফয়সাল, হাফেজ মাওলানা এহতেশামুল হক প্রমুখ। হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় প্রধান বিচারকের দায়িত্বপালন করেন শায়খ ক্বারী সাইফুল ইসলাম আল হুসাইনী। বিশেষ বিচারক ছিলেন শায়খ ক্বারী শফিউল্লাহ ও শায়খ ক্বারী আব্দুর রশীদ। অনুষ্ঠানে বিজয়ী কারীদের পুরস্কৃত করা হয়। সেই সাথে সহায়তাকারী বিভিন্ন উপজেলার প্রতিনিধিদেরকেও সম্মানিত করে আয়োজক কমিটি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •