আবদুল মজিদ, চকরিয়া: 
বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ চকরিয়া শাখা উদ্যোগে পবিত্র মাহফিলে ইছালে ছাওয়াব বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স চকরিয়ায় ৩০ জানুয়ারী বাদে আসর মসজিদ কমপ্লেক্সের সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ারুল হাকীম দুলাল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বায়তুশ শরফের মাননীয় পীর ছাহেব কেবলা, ইসলামী ব্যাংক শরীয়াহ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বাহরুল উলুম আল্লামা শাহ্ মোহাম্মদ কুতুব উদ্দিন (মঃজিঃআঃ)।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বায়তুশ শরফের পীর ছাহেব বলেন, মহান আল্লাহ তায়ালা পৃথিবীতে মানুষ সৃষ্টি করে হেদায়াতের জন্য যুগে যুগে অসংখ্য নবী ও রাসুল প্রেরণ করেছেন। সকল নবী- রাসুল আল্লাহর বিধান অনুসারে জীবন পরিচালনার জন্য মানব জাতিকে আহ্বান করেছে। তারা মানুষকে চিরস্থায়ী সুখ-শান্তির পথ প্রদর্শন করেছেন। সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ নবী ও রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সঃ) দুনিয়া থেকে বিদায় নেওয়ার পর কেয়ামত পর্যন্ত তার উম্মতের মধ্যে বিশেষ শ্রেণির মনিষীগণ দ্বীন ইসলামের প্রচার ও প্রসার করবেন। মানব জাতি কোরআন এবং সুন্নাহ কে সঠিক ভাবে আকড়ে ধরলে কখনো পথভ্রষ্ট হবে না। আমাদের সকলেরই উচিত আল্লাহ এবং রাসুল (স) এর সুন্নাতের অনুসরণ ও অনুকরণ করা। এক্ষেত্রে আল্লাহ এবং পরকালের ভয় একজন মোমেনর জীবনে সবক্ষেত্রে স্মরণ রাখা দরকার।

এতে প্রধান আলোচক ছিলেন- মজলিসুল উলামা বাংলাদেশের মহাসচিব আলহাজ্ব মাওলানা মামুনুর রশিদ নুরী, বিশেষ আলোচক ছিলেন কেন্দ্রীয় বায়তুশ শরফ চট্টগ্রামের আলহাজ্ব মাওলানা কাজী শিহাব উদ্দিন ও মসজিদ বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স চকরিয়ার খতিব আলহাজ্ব মাওলানা আবদুর রশিদ আল কাদেরী প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন- চকরিয়া আনওয়ারুল উলুম কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা রুহুল কুদ্দুস আনোয়ারী আল আযহারী, কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের মহাপরিচালক আলহাজ্ব মাষ্টার সিরাজুল ইসলাম, চকরিয়া বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব নুর আহমদ সওদাগর, সহসহসভাপতি হাজী ছালেহ আহমদ সওদাগর, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল মজিদ, বায়তুশ শরফের মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন সওদাগর, আলহাজ্ব মুফিজুল রহমান সওদাগর, আলহাজ্ব নুরুল আমিন সওদাগর, এসএম আবুল হাসেম, বায়তুশ শরফের কোষাধ্যক্ষ আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম,  মসজিদের ইমাম মাওলানা শহিদুল্লাহ, মুহাম্মদ শাহ জাহান প্রমুখ। পরিশেষে, দেশ ও জাতির কল্যাণের জন্য দোয়া করেন বায়তুশ শরফের পীর ছাহেব হুজুর কেবলা (মঃজিঃআঃ)।

এদিন সকাল থেকে মসজিদে পবিত্র খতমে কোরআন, দাওয়াতে খাজেগান ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন এবং নির্মানাধীন একাধিক ভবনের উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •