cbn  

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম:
কক্সবাজার থেকে ঢাকামুখী একটি বাস থেকে ২৫ হাজার ইয়াবাসহ সিরাজগঞ্জের একটি পরিবারের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-১০ এর উপঅধিনায়ক মেজর আশরাফুল হক বলেছেন, ইয়াবা কারবারিদের খপ্পড়ে পড়েছিল এই পরিবার। তারা নিজেদের টাকা দিয়ে কক্সবাজার ঘুরিয়ে ফেরার পথে এদের হাতে ইয়াবার প্যাকেট ধরিয়ে দিয়েছিল।

গ্রেপ্তাররা হলেন-সিরাজগঞ্জের ব্রাহ্মণ বয়ড়াপাড়ার তারা বানু (৪৮), তার কলেজপড়ুয়া ছেলে আলিফ হোসেন, আলিফের নববিবাহিতা স্ত্রী সুমাইয়া রহমান স্বর্ণ এবং তারা বানুর মেয়ে শিখা খাতুন। এদের সঙ্গে শিখার মেয়ে থাকলেও শিশু হওয়ায় তাকে গ্রেপ্তার করেনি র‌্যাব।

তারা বানুর স্বামী কৃষক হাবিবুর রহমান কক্সবাজারে না গিয়ে গ্রামের বাড়িতেই আছেন বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তা আশরাফ।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ব্রাহ্মণ বয়ড়াপাড়ার জাকির হোসেন ও রাশিদুল ইসলাম ইয়াবা ‘চোরাকারবারি’।

“তারা গ্রামের কৃষক হাবিবুর রহমানের পরিবারের সদস্যদের বিনা খরচে ঘোরার লোভ দেখিয়ে ৩-৪ দিন আগে কক্সবাজারে নিয়ে যায়।”

মেজর আশরাফ বলেন, মাদক চোরাচালানিদের এটা নতুন কৌশল। কক্সাবাজারে বিনা টাকায় বেড়াতে নিয়ে হোটেলে কয়েক দিন রাখার পর সেখানে ‘বারমিজ মার্কেটে’ নিয়ে কেনাকাটাও করিয়ে দেয়।

“ফেরার পথে সোমবার রাতে তাদের হাতে প্রায় ২৫ হাজার ইয়াবা ধরিয়ে দেয়।”

এই খবর জানতে পেরে সোমবার সকাল ৯টার দিকে ঢাকার কদমতলীতে মুক্তি সিনেমা হলের সামনে কক্সবাজার থেকে আসা ‘সেন্ট মার্টিন’ পরিবহনের বাসটি তল্লাশি করে র‌্যাব।

এ সময় তারা বানু ও পরিবারের সদস্যদের কাছে ওই সব ইয়াবা বড়ি ও নগদ প্রায় ৩৫ হাজার টাকা পাওয়া যায় বলে র‌্যাব কর্মকর্তা আশরাফ জানান।

এ ঘটনায় জাকির ও রাশিদুল ছাড়াও কক্সবাজারের ইব্রাহিম, জামাল হোসেন ও আলম নামে তিনজনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •