মোঃ নিজাম উদ্দিন, চকরিয়া:
চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীতে অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের দায়ে পাঁচটি সেলুমেশিন ও সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়েছে। বিজিবি ও বন বিভাগের এ যৌথ অভিযানকালে জড়িতরা পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।
শনিবার (২৬ জানুয়ারি) সকালে খুটাখালীর সংরক্ষিত বনাঞ্চল মধুশিঁয়া নামক এলাকায় অবৈধ বালু পয়েন্টে এ অভিযান চলে। অভিযানে নেতৃত্ব দেন কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের ফুলছড়ি রেঞ্জ সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) বেলায়েত হোসেন ও রেঞ্জ কর্মকর্তা ছৈয়দ আবু জাকারিয়া। সাথে ছিলেন রামু বিজিবি-৩০ এর একটি ফোর্স। এসময় ফুলছড়ি রেঞ্জ অধীনস্থ সকল বিট কর্মকর্তা, স্টাফ, ভিলেজার, ও সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, চকরিয়ার রহিম মেম্বার, বাবুল, নাছির, খুটাখালীর সাইফুল, আনোয়ার হোছন মেম্বার, বশির ড্রাইভার, পেটান, জয়নাল, কামাল, হুমাইয়ুন, সালাহ উদ্দিন, বেলাল, শামসু ও মিন্টুসহ ২০-২৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ প্রভাবশালী চক্র বর্নিত স্থান থেকে দীর্ঘ সময় ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছিল। এতে ব্যবহার করা হয় ডজনাধিক নিষিদ্ধ সেলুমেশিন। বিষয়টি ইতিপূর্বে পরিবেশ অধিদপ্তর কক্সবাজারে অবগত করা হয়েছিল বলেও জানায় এলাকাবাসী।
ফুলছড়ি রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা ছৈয়দ আবু জাকারিয়া বলেন, সংরক্ষিত বনাঞ্চল খুটাখালীর মধুশিঁয়া পয়েন্টে অসাধু বালি ব্যবসায়ীরা অবৈধভাবে বালি উত্তোলন করে ও ট্রাকের মাধ্যমে বালি বিক্রি করে ব্যবসা করে আসছিল। বিষয়টি বন বিভাগের নজরে আসলে বিজিবি সহকারে যৌথ অভিযান চালানো হয়।
এসময় ৫টি সেলুমেশিন ও ৫০ফুট পরিমাণ পাইপ জব্ধ করা হয়েছে। সেলুমেশিন ও সরঞ্জামাদি রেঞ্জ কার্যালয়ে জব্দ রাখা হয়েছে। তিনি আরো জানান, এ অভিযান অব্যাহত থাকবে এবং সংরক্ষিত বনাঞ্চল থেকে কেউ বালু উত্তোলন করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •