সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের আমীর চট্টগ্রাম দারুল উলুম মঈনুল ইসলামের মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফী, বিশ্ব বিখ্যাত আরবী সাহিত্যিক চট্টগ্রাম দারুল মা’আরিফ আল ইসলামিয়ার মহাপরিচালক আল্লামা সোলতান যওক নদভী, আল-জামিয়াতুল ইসলামিয়া পটিয়ার মহাপরিচালক আল্লামা আব্দুল হালিম বোখারীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করায় কক্সবাজার লাইট হাউজ মাদরাসার মোহতামিম ও হেফাজতে ইসলামের কক্সবাজার জেলা শাখার সহ-সভাপতি মাওলানা মোঃ আলীকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়েছে। সেই সাথে তাকে দল থেকেও বহিস্কার করা হয়েছে।
শনিবার (২৬ জানুয়ারী) সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ ঘোষণা দেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলা শাখার সাধারণ স¤পাদক মাওলানা মোহাম্মদ ইয়াসিন হাবিব। তিনি মোঃ আলীর দুর্নীতির সচিত্র ফিরিস্তি তুলে ধরেন।
কক্সবাজার শহরের একটি আবাসিক হোটেলের সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মাওলানা ইয়াসিন হাবিব বলেন, নৈতিক স্খলন না হলে বিশ্ববরেণ্য তিনজন আলেমের বিরুদ্ধে কেউ মামলা করতে পারেনা। মাদরাসা, মসজিদসহ অসংখ্য প্রতিষ্ঠানের টাকা আতœসাতের অভিযোগ রয়েছে আলেম নামের কলঙ্ক এই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। কর্মজীবনের শুরুতে সৌদিভিত্তিক এনজিও থেকে আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে চাকরিচ্যুত হন। নানা অভিযোগে রামু জোয়ারিয়ানালা মাদরাসার শিক্ষকতা থেকেও বহিষ্কৃত হন।
এরপর লাইট হাউস মাদরাসায় যোগদান করলে সেখানেও দায়িত্ব পালনকালে প্রচুর আর্থিক অনিয়ম-দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া যায়। যার সমস্ত অডিট রিপোর্ট মজুদ আছে। মোঃ আলী নিজের দুর্নীতি আড়াল করতে মিথ্যা মামলার আশ্রয় নিয়েছে।
হেফাজত নেতা ইয়াসিন হাবিব বলেন, বরেণ্য আলেমদের বিরুদ্ধে মামলা করে দৃষ্টতা প্রদর্শণ করায় মোঃ আলীকে পুরো জেলায় অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হলো। সেই সাথে হেফাজতে ইসলামের সব ধরণের পদপদবী ও দায়িত্ব থেকে মাওলানা মো. আলীকে বহিস্কার করা হয়েছে বলে ইয়াছিন হাবীব ঘোষণা দেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- কলাতলীর লাইট হাউজ মাদরাসার মজলিশে শুরার সদস্য মাওলানা হাসসান দিদার, হেফাজতে ইসলামের জেলা অর্থ সম্পাদক মাওলানা হাফেজ মুবিনুল হক, খুরুশকুল মদিনাতুল উলুম মাদরাসার পরিচালক মাওলানা হোছাইন আহমদ, হেফাজতে ইসলামের জেলার যুগ্মসম্পাদক মাওলানা কেফায়েত উল্লাহ, কক্সবাজার শহরের সহসভাপতি মাওলানা মনজুরে ইলাহি, সাবেক ছাত্রনেতা মাওলানা খালেদ সাইফী, মাওলানা হাফেজ হেলাল উদ্দিন, মাওলানা হাফেজ নুরুল্লাহ জিহাদী, মাওলানা ছালামত উল্লাহ আশরাফী, লাইট হাউজ মাদরাসার শিক্ষা পরিচালক মাওলানা হাফিজ উদ্দিন, জেলা হেফাজতের সদস্য মাওলানা দিদারুল আলম। এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে জেলার বিভিন্ন মাদরাসার মোহতামিম, শিক্ষক, ছাত্রসহ অসংখ্য লোক উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •