কাজী আবদুল্লাহ :

সদ্য সমাপ্ত হওয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই জাতীয় নির্বাচন কমিশন মেয়াদ শেষ হতে চলা উপজেলা পরিষদের নির্বাচন সম্পন্ন করার ঘোষনা দিয়েছেন।

এরপর থেকেই কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে অংশ গ্রহন করার জন্য আওয়ামী লীগের অনেকেই দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন। ইতিমধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান পদে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে সকলের নিকট দোয়া ও দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করে স্টাটাস দিয়েছেন কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক দুই-দুই বারের সহ-সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির চৌধুরী (হিমু)। হিমু গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় সমর্থন নিয়ে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে অল্প ভোটে হেরে গিয়েছিলেন।

এবার ও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হুমায়ূন কবির চৌধুরী হিমু জানান, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আমি একজন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী। জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও জেলা যুবলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক হিসেবে আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব ও দলীয় কার্যক্রম অত্যন্ত স্বচ্ছ এবং সততার সাথে করতে আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছিলাম আমি। মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের বিপদে আপদে ও যে কোন সমস্যা নিয়ে আমার কাছে আসলে তা সমাধানের চেষ্টা করেছি। সঙ্গত কারনেই তৃণমুলের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের ভালবাসা এবং দোয়া রয়েছে আমার প্রতি। আমি আশা করি দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে আমার বিশ্বাস কক্সবাজার সদর উপজেলার সর্বস্তরের জনগন বিপুল ভোটে আমাকে নির্বাচিত করবে। আমি সবাইকে সাথে নিয়ে রাজনীতির মাঠে প্রতিপক্ষের সাথে লড়াই করে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদটি ছিনিয়ে আনব। তবে তা হবে দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্তি সাপেক্ষে।
কারন আমি দলের বাইরে গিয়ে নির্বাচন করব না। তিনি আরো বলেন, দল যদি আমাকে মনোনয়ন না দেয়। তাহলে যাকেই মনোনয়ন দিবেন আমি তার পক্ষেই কাজ করব।

উল্লেখ্য, হিমু বীর মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার ছৈয়দুল আলম চৌধুরীর ২য় সন্তান এবং কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, কক্সবাজার সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক,কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মরহুম আলমগীর চৌধুরীর হিরুর ছোটভাই ও ৯০’র স্বৈরচার বিরুধী আন্দোলনের আপোষহীন ছাত্রনেতা,আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কক্সবাজার জেলা শাখার সাবেক
যুগ্ন-আহ্বায়ক মরহুম রাশেদ উদ্দিন চৌধুরী বাবরের বড়ভাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •