আবদুল মালেক সিকদার, রামু:
আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আলোচনায় এসেছেন রামুর জমিদার পরিবারের সন্তান নুরুল হক চৌধুরী। সম্প্রতি উপজেলা নির্বাচনে আলোচনার হাওয়ায় দুলছে রামুর জমিদার পরিবারের এই সন্তানের নাম। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে সর্বস্তরের মানুষ তাকে চাচ্ছে।
নুরুল হক চৌধুরী শিক্ষাদীক্ষা, সমাজসেবা, দানদক্ষিনায় এলাকায় সর্বস্তরের মানুষের কাছে পরিচিত ও গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি। দুস্থ ও অসহায় মানুষজনের পাশে তিনি সব সময় থাকেন। এবারের উপজেলা নির্বাচনে দলের ভেতরে বাইরে তার মনোনয়ন নিয়ে আলোচনা চলছে।
জননেতা নুরুল হক চৌধুরী রামু উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে রয়েছে। তিনি জেলা আওয়ামী যুব লীগের সাবেক সহশিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও পাঠাগার সম্পাদক, জেলা ছাত্রলীগের সদস্য ও রামু উপজেলা ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন।
ছাত্র জীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জ্বীবিত সাটামাটা এই মানুষটি দলের জন্য সবসময় নিবেদিত হিসেবে পরিচিত।
স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্ব দেয়ার জন্য নুরুল হক চৌধুরী রাজনীতির মাঠে বেশ প্রশংসিত।
তিনি নিজের এলাকা রামু উপজেলার ফতেখারকুল অফিসের চর এলাকায় সামাজিক, ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক কাজে জড়িত। বিভিন্ন সমাজসেবামূলক প্রতিষ্ঠানে পৃষ্ঠপোষকতা করেন।
নিজ এলাকার বাইরেও গড়ে তুলেছেন অসংখ্য সমাজসেবা মূলক সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান। বংশীয় কারণে পুরনো প্রজন্মের পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের কাছেও বেশ জনপ্রিয় নেতা।
উদীয়মান সমাজসেবক ও রাজনীতিবিদ নুরুল হক চৌধুরী বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম নেতা বিশিষ্ট জমিদার মরহুম আব্দুল মতিন সিকদারের নাতি, বিশিষ্ট জমিদার মরহুম সোলতান আহমদ চৌধুরীর সন্তান এবং বাংলাদেশ ডাক বিভাগের সাবেক মহাপরিচালক আব্দুল মোমেন চৌধুরীর ছোট ভাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •