জাহাঙ্গীর আলম শামস্:

কক্সবাজার ইনস্টিটিউট ও পাবলিক লাইব্রেরির দ্রুত সংস্কারের দাবীতে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করেছে কক্সবাজার সমাজ সমীক্ষা সংঘ। ” শিরোনামে আয়োজিত কর্মসুচিতে উপস্থিত সংস্কৃতিকর্মী ও প্রগতিশীল নেতৃবৃন্দ বলেন, গত এক যুগেরও বেশি সময় ধরে সংস্কারের নামে নানা মাত্রিক জটিলতায় নিভিয়ে রাখা হয়েছে কক্সবাজারের প্রগতিশীল অঙ্গনের এই বাতিঘর। এখানের পাঠাগারে ছিলো পুরোনো মূল্যবান বই, পাণ্ডুলিপি ও সংবাদপত্র। যার সংখ্যা প্রায় ২০ হাজারের অধিক। ইতিমধ্যেই রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ওইসব বইয়ের বেশিরভাগ নষ্ট হয়ে গেছে।

শতবর্ষের অধিক ইতিহাস সমৃদ্ধ এই বাতিঘর থেকে সূচিত হয়েছে অনেক আন্দোলন সংগ্রাম। নিয়মিত পাঠচক্র, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালিত হতো এখান থেকেই।

এই বন্ধ্যা অবস্থা থেকে মুক্তির দাবি জানিয়ে হাজারো আলো জ্বালানো হয় পাবলিক লাইব্রেরিতে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা খেলাঘরের সাধারণ সম্পাদক কলিম উল্লাহ, সমাজ আন্দোলের কর্মী নাজিম উদ্দিন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদ মুরাদ সুমন, সাংবাদিক এইচ এম নজরুল ইসলাম, জেলা ডেকোরেটার্স মালিক সমিতির সভাপতি জামাল হোসেন মনু, প্রবীণ সমাজকর্মী মিহির ধর, দেবাশিষ ভট্টাচার্য দেবু, কক্সবাজার সমাজ সমীক্ষা সংঘের সমন্বয়ক ফয়সল সাকিব, সিমুনিয়া খেলাঘর আসরের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর মল্লিক রানা, সৌরভ দেব প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •