cbn  

বিশেষ প্রতিবেদক:
কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম সংলগ্ন পর্যটন গলফ মাঠে শুরু হয়েছে শিল্প ও বাণিজ্য মেলা।
গত ১০ জানুয়ারী মেলা উদ্বোধন হয়।
শুরুর এক সপ্তাহ পর ১৮ জানুয়ারী মেলা প্রাঙ্গনে গেলে দেখা যায়, প্রবেশ গেইটের ঠিক পশ্চিম পাশে বসানো হয়েছে গৃহস্থালির সামগ্রীর একটি দোকান।
ওই দোকানের কর্মচারীরা ডাক দিয়ে বলছে-‘১টি কিনলে ১০টি ফ্রি। আসেন, বসেন। দেখে দেখে নিয়ে যান’ ইত্যাদি।
কর্মচারীদের ডাক শুনে মনে হবে যেন এক্কেবারে সস্তায় বিক্রি করা হচ্ছে। পানির দামে দিয়ে দিচ্ছে মালামাল। তাই ক্রেতারাও একটু কাছে গিয়ে দেখে। অনেকে দামদর করলেও অধিকাংশ লোক পাশ কেটে চলে যেতে দেখা গেছে।
মোঃ নেজাম উদ্দিন নামের এক ক্রেতা জানান, একটি ওভেনের গায়ে দাম লেখা হয়েছে ৩২ হাজার ৫০০টাকা। যা বাজারে সর্বোচ্চ ১১ হাজার টাকায় পাওয়া যাবে। সেই ওভেন কিনলে নাকি দেয়া হবে আরো ১০টি আইটেম ফ্রি। তাছাড়া ‘অরিজিনাল স্যামসাং এলইডি টিভি’র নামে নকল টিভি বিক্রি করা হচ্ছে মেলায়। মেলার দক্ষিণ পাশে রয়েছে এরকম আরো একটি দোকান। ওখানেও একই ফাঁদ বসানো হয়েছে বলে দর্শণার্থীরা জানান।
অবাক করার মতো বিষয় হলো- প্যাকেজের নামে যে ১০টি আইটেম ফ্রি প্রচার করছে, তা বাজারে ৫ থেকে ৭ হাজারের মধ্যেই মিলবে।
সব মিলিয়ে ১৬ থেকে ১৮ হাজার টাকার পণ্য ‘প্যাকেজ’ নাম দিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে ৩২ হাজার ৫০০ টাকায়। বাণিজ্যমেলার মতো একটি বিনোদনদায়ক আয়োজনে প্রতারণামূলক ও ঠকবাজ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছে দর্শণার্থীরা। তবে, দোকানদাররা কম দামে, প্রচারের উদ্দেশ্যে ‘প্যাকেজের’ মাধ্যমে তাদের পণ্য বিক্রি করছে বলে দাবী করেছে।
মেলার আয়োজক কমিটি সূত্রে জানা গেছে, এবারের মেলায় শতাধিক স্টল বসেছে। ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে ১০০টি সাধারণ স্টল ও ২টি মুখরোচক ফুড স্টলের কাজ। আরো বেশ কিছু স্টলের কাজ চলছে। মেলায় অংশ নেওয়া প্যাভিলিয়ন ও সাধারণ স্টলে প্রসিদ্ধ গার্মেন্টস, হোমটেক্স, ফেব্রিকস পণ্য, হস্তশিল্পজাত, পাটজাত, গৃহস্থালি ও উপহারসামগ্রী, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, তৈজসপত্র, সিরামিক, প্লাস্টিক, পলিমার পণ্য, কসমেটিকস হারবাল ও প্রসাধনী সামগ্রী, খাদ্য ও খাদ্যজাত পণ্য, ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিকস সামগ্রী, ইমিটেশন ও জুয়েলারি ও ফার্নিচার এর স্টল রয়েছে।
শিশুদের বিনোদনের জন্য মেট্রো রেল, নৌকা দোলনা, নাগরদোলা, ওয়াটার স্পিডবোট, জাম্পিং বেলুন, ওয়াটার বল, ফাইভার ইলেকট্রিক চর্কি ও মিনি হাতি ঘোড়া বসানো হয়েছে। রয়েছে মৃত্যুকূপ, বিচিত্রা ও যাদু প্রদর্শনী।
মেলায় স্বনামধন্য দেশীয় ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠান কিয়াম, প্রাণ, আরএফএল, এসিআই ছাড়া দেশি-বিদেশি কার্পেট, জামদানি ও রাজশাহী সিল্ক শাড়ির প্যাভেলিয়নও রয়েছে।
বাণিজ্য মেলাকে নিরাপত্তার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। মেলায় যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে পুলিশের বিশেষ টিম সার্বক্ষণিক নিয়োজিত আছে।
মেলার গেট ও বিভিন্ন স্টল প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকছে। প্রবেশে টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ টাকা। ছুটির দিন শুক্রবার মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থীর খানিকটা ভিড় ছিল। তবে, এখনো মেলা জমে উঠেনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •