cbn  

ডেস্ক নিউজ:

টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম ফিডে পুরনো দিনের ছবি নিয়ে এখন ‘ফিরে দেখা’ কার্যক্রম চলছে। আশপাশের মানুষজন, বন্ধু, আত্মীয়-স্বজনসহ সবাই এ কাজটি করছেন। এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘হ্যাশট্যাগ টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ’।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা ১০ বছর আগের এবং এখনকার ছবি ব্যবহার করে পোস্ট করছেন। ইতোমধ্যে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও টুইটারে এটা ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কিন্তু এই বিষয়টি আসলে কী?

যুক্তরাজ্যভিত্তিক গণমাধ্যম দ্য সানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এই চ্যালেঞ্জ কীভাবে শুরু হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি। এমনকি কার মাধ্যমে চ্যালেঞ্জটির শুরু, সেটাও নিশ্চিত করতে পারেননি তারা।

এই চ্যালেঞ্জে অংশ নিতে হলে আপনাকে ১০ বছর আগের একটি ছবি এবং একেবারেই নতুন তোলা একটি ছবি একসঙ্গে দিতে হবে। একেবারেই নতুন ছবি না হয়ে দুই সপ্তাহ আগের ছবি হলেও চ্যালেঞ্জে সেটা গ্রহণযোগ্য।

এই চ্যালেঞ্জের মূল উদ্দেশ্য হলো, ১০ বছরে আপনার কী পরিবর্তন হলো সেটা তুলে ধরা। অর্থাৎ ১০ বছর আগে আপনি কেমন ছিলেন এবং বর্তমানে কেমন আছেন, সেটা সবার সামনে তুলে ধরাই হলো টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ।

কিছু তারকা অবশ্য টেন ইয়ার বা ১০ বছরে থেমে থাকেননি। তারা এই চ্যালেঞ্জকে নিয়ে গেছেন টুয়েন্টি কিংবা থার্টি ইয়ার চ্যালেঞ্জে।

অবশ্য কিছু সমালোচনাকারী বলছেন, টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ হলো গ্রাহকদের ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ভঙ্গের একটি কৌশল। গ্রাহকরা তাদের অনেক পুরনো অপ্রকাশিত ছবি এই চ্যালেঞ্জের মাধ্যমে পোস্ট করছেন, যা হয়তো কোনও সময়ই প্রকাশ করা হতো না।

এর মাধ্যমে একজন মানুষের ১০ বছরের ব্যবধানে কেমন পরিবর্তন হয় তা জানতে পারছেন ফেস রিকগনেশন নিয়ে কাজ করা বিশ্লেষকরা। আর এতে ভবিষ্যতে এই চ্যালেঞ্জে অংশ নেওয়া গ্রাহকদের বিপদ হতে পারে বলেও সতর্ক করে দিয়েছেন সমালোচনাকারীরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •