আব্দুর রশিদ, বাইশারী, বান্দরবান :

এলাকার মানুষের কাছে অতি পরিচিত মানব কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ, অনাথ শিশুদের নিয়ে যিনি দীর্ঘকাল যাবৎ কাজ করে যাচ্ছেন এবং আর্তমানবতার সেবায় এগিয়ে থাকা তরুণ উদিয়মান যুবকটির নাম বাবু মংলা মার্মা।

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মানুষের কল্যাণে বহুমুখী সেবা নিয়ে বর্তমান সরকারের দেওয়া প্রতিশ্রুতিকে বাস্তবে রুপ দিতে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চাই বাবু মংলা মার্মা। ছাত্র জীবন থেকে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে উৎতপোত ভাবে তিনি জড়িত। শুধু তিনি নয় পুরো পরিবার ও আওয়ামীলীগ পরিবার হিসেবে এলাকার সকলের কাছে পরিচিত।

তিনি হলেন, পার্বত্য বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ধাবন খালী মার্মা পাড়ার বাসিন্দা প্রয়াত মাষ্টার থোয়াই ¤্রা উ মার্মার একমাত্র পুত্র মংলা মার্মা। বর্তমানে তিনি উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক পদে নিয়োজিত ও দায়িত্ব পালন করে আসছেন। রাজনীতির পাশাপাশি এলাকার আত্বসামাজিক উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে ও তার অবদান অবিস্বরণীয়। আত্বমানবতার সেবায় নিজেকে বিলীন করে দিয়েছেন মংলা মার্মা। প্রায় দীর্ঘকাল যাবৎ শতাধিক অনাথ শিশুদের জন্য খুৃলে দিয়েছেন অনাথ আশ্রম। এসব শিশুদের ভরণ, পোষণ, পড়া, লেখার পাশাপাশি স্বাস্থ্য সেবার কাজও করে যাচ্ছেন তিনি। পাহাড়ী কি, বাঙ্গালী ! সকলের অতি পরিচিত মুখ সে। তার নিজস্ব প্রতিষ্ঠানের নাম ট্রাবেল গার্লস অরফেন্স হোম।

তাছাড়া বাইশারী ইউনিয়নের ৩০ হাজার মানুষের মানব সেবার প্রাণ কেন্দ্র বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ ভবণ নির্মাণের জন্য প্রায় কোটি টাকার সম্পদ (পঞ্চাশ শতক ১ম শ্রেণির) জমি দান করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা। গতকাল এই প্রতিবেদক সরজমিনে এলাকায় গিয়ে পাহাড়ী বাঙ্গালী শতাধিক লোকজনের সাথে কথা বলে তরুণ যুবক মংলা মার্মার এই সচিত্র প্রতিবেদনের তথ্য উপাত্ত উঠে এসে।

এলাকার প্রবীণ মুরুব্বী জুলফিকার আলী, ও প্রবীন কারবারী ক্যথোয়াচিং মার্মা, সহ অনেকে বলেন, পাহাড়ী বাঙ্গালী সকলের প্রিয় মুখ এই তরুণ যুবক মংলা মার্মা। বাইশারীর অনেক তরুণ ছাত্র নেতারা ও জানান, সরকার যেহেতু বর্তমানে তারুন্যকে প্রধাণ্য দিয়ে দেশ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চিন্তায় রয়েছে তাহলে এই তরুণ সমাজসেবক মংলা মার্মাকেও আমরা এলাকার উন্নয়নের জন্য আগামী দিনে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হিসেবে আশা প্রকাশ করছি।

তাছাড়া এলাকাবাসীর দাবী বাইশারী ইউনিয়নে এই পর্যন্ত উপজেলা পর্যায়ে কোন প্রার্থী বিগত দিনে ছিলনা তাই আগামী নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে বাইশারীবাসী মংলা মার্মাকে প্রার্থী হিসেবে দেখতে চায় এবং বিষয়টি নিয়ে ইতি মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে বাইশারী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বাহাদুর বলেন, মংলা মার্মা ছাত্র জীবন থেকে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে। দলের সকল কাজে তিনি সহযোগিতা দিয়ে আসছে। তাই সকল বিষয় বিবেচনা করে তিনি বিষয়টি দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্ধদের কাছে অবশ্যই বিবেচনার জন্য জানাবেন এবং দলের সিদ্বান্ত অনুযায়ী কাজ করে যাবেন।

তবে এই প্রতিবেদক দীর্ঘক্ষন ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মংলা মার্মার সাথে আলাপ কালে তিনি বলেন, আমি যেহেতু আওয়ামীলীগের রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছি, প্রথমে আমি দলের সিনিয়র নেতাদের সাথে বিষয়টি নিয়ে আলাপ আলোচনা করে ভাইস চেয়ারম্যান পদে যদি দল আমাকে নমিনিশন দেন তাহলে গরীব দূঃখী মেহনতী মানুষের পাশে থেকে আজীবন কাজ করে যাওয়ার ইচ্ছা রয়েছে। পাশাপাশি দলের মান অক্ষুন্ন রেখে জননেত্রী প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বাবু বীর বাহাদুরের একজন একনিষ্ট কর্মীও সহযোগি হিসেবে ডিজিটাল উপজেলা বিনির্মানে কাজ করে যাব। আর দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেন মানুষের আস্থা ও ভালবাসার কথা মনে রেখে সরকারের দেওয়া দায়িত্ব পালন করে যাব।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •