চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদকে ফুল দিতে গিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। পরে সিনিয়র নেতাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়। মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে এই ঘটনা ঘটেছে। মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর এদিন প্রথম জন্মস্থান চট্টগ্রামে আসেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রী প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মন্ত্রী চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে পৌঁছান। এর আগে থেকেই সেখানে নেতাকর্মীদের ভিড় ছিল। মন্ত্রী প্রথমে সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রামের আওয়ামী লীগের নেতাদের সাথে এবং পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এসময় সভাস্থলও ছিল নেতাকর্মীতে পরিপূর্ণ। চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের শ’খানেক নেতাকর্মীরা সেখানে ছিলেন।

জানা যায়, মতবিনিয় শেষ হওয়ার পর সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতাকে নিয়ে বের হচ্ছিলেন। এসময় সার্কিট হাউজের বাইরে অপেক্ষমান নেতাকর্মীরা ছবি ও ফুল দেওয়ার হুড়োহুড়ি করে। এসময় বিশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। এর একপর্যায়ে হাতাহাতিতে জড়ান ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মন্ত্রীর হাতে ফুল দেওয়ার সময়ই উত্তর জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হুড়োহুড়ি শুরু করেন। ফুল দিয়ে বেরিয়ে আসার পথে ধাক্কাধাক্কি, হইচই শুরু হয়। একপর্যায়ে কয়েকজন মিলে এক যুবককে সার্কিট হাউজের কম্পাউন্ডের বাইরে এনে পেটাতে দেখা যায়। তখন পাল্টাপাল্টি কিল, ঘুষি, হট্টগোলে সেখানকার পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। এসময় উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর হোসেন চৌধুরী তপু এবং সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিমকে দুই গ্রুপকে সরিয়ে দিয়ে পরিস্থিতি সামলাতে দেখা যায়। এসময় একজন আহত হয়েছে বলে জানা যায়। তবে জানা যায়নি।

জানতে চাইলে তানভীর হোসেন তপু বলেন, মন্ত্রী বের হওয়ার সময় ভিড়ের মধ্যে ফুল দিতে গিয়ে সামান্য ধাক্কাধাক্কি হয়। তখন সামান্য হাতাহাতি হয়েছে। তেমন কিছু না। চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার বলেন, আসলে মন্ত্রীকে বরণ করতে অনেক নেতাকর্মী, সমর্থক সার্কিট হাউজে গিয়েছিল। ভিড়ের মধ্যে সামান্য বিশৃঙ্খলা অস্বাভাবিক কিছু নয়। ঘটনাস্থলে থাকা কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, আমার চোখে কিছু পড়েনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •