আমিনুল কবির :
কক্সবাজার শহরের লাইট হাউজ পাড়ায় সম্প্রতি ঘন ঘন সংঘবদ্ধ চুরির কারণে আতংকিত হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী। প্রতিদিন কোন না কোন বাড়ী ও দোকানে চুরি হচ্ছেই।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রতিদিন গভীর রাতে অজ্ঞাত সংঘবদ্ধ চোরের দল সাধারন মানুষের বাড়ী, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হানা দিয়ে মোবাইল, টাকা পয়সা, স্বার্ণালংকারসহ মূল্যবান জিনিসপত্র প্রতিনিয়ত চুরি করে র্নিবিগ্নে পালিয়ে যাচ্ছে।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়,গত কয়েকদিনে এলাকার বেশ কয়েকটি দোকান ও বাড়ী থেকে আনুমানিক ২/৩ লক্ষ্য টাকার জিনিসপত্র চুরি করা হয়েছে।

এলাকার মাবিয়া নামে এক দোকানদার জানায়, গত ১ সপ্তাহ আগে আমার দোকানের গ্রিলের তালা কেটে দোকানে প্রবেশ করে ক্যাশ বাক্সে থেকে নগদ টাকা, অন্যান্য পন্য সামগ্রী মিলে প্রায় ৬০ হাজার টাকার মালামাল চুরি হয়েছে।

স্থানীয় হতদরিদ্র দিন মজুর আইয়ুবের বাড়ী থেকে প্রায় ২০-৩০ হাজার টাকার মালামাল নিয়ে যায়।
অপরদিকে এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হোটেলের এক কর্মচারী জানান সোমবার রাতে আমার বাড়ীর দরজার ভেঙ্গে একটি ১২ হাজার টাকা দামের স্মাট মোবাইলসহ দুইটি মোবাইল ও নগদ পাঁচ হাজার টাকা চুরি করে নিয়ে গেছে।
এলাকায় এই সমস্ত চুরির ঘটনায় জনমনে আতংক দেখা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক যুবক জানান,এলাকার কয়েকজন যুবক সিন্ডিকেট করে ইয়াবা সেবনের টাকা জোগাড় করতে এ ধরণের চুরির ঘটনা ঘটাচ্ছে । এদের অত্যাচারে এলাকার মানুষ আজ তাদের আতংকে রয়েছে বলেও জানান। তাদের এ ভয়াবহ মাদকের ছুবলে এলাকার কিছু উঠতি বয়সী যুব সমাজ আজ ধ্বংসের পথে।

এই চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ হোটেল মোটেল জোনসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে প্রতিনিয়ত চুরি,ডাকাতি ও মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

এলাকাবাসী চোর থেকে রক্ষা পেতে
সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদ উদ্দীন খন্দকারের কাছে আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •