বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে অতিথি পাখির আগমন

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:
অতিথি পাখির কলকাকলিতে মুখর হয়ে উঠেছে দেশের বৃহত্তম পর্যটকদের দর্শনীয় স্থান চকরিয়ার ডুলাহাজারাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের লেক। সাফারী পার্কের অভ্যন্তরে বন্যপ্রাণীর পানীয় জলের জন্য ২টি কৃত্রিম হ্রদ রয়েছে। প্রতিবছর শীতের মৌসুম আসলেই এ কৃত্রিম হ্রদ (লেকে) আগমন ঘটে হাজারো অতিথি পাখির। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পূর্ব পার্শ্বে ডুলাহাজারা রিজার্ভ ফরেষ্টে মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্য সম্বলিত বনাঞ্চলে এই সাফারী পার্কটি অবস্থিত। বর্তমানে এ পার্কের আয়তন ৯০০ হেক্টর। জেলা সদর হতে উত্তরে পার্কটির দূরত্ব ৫০ কি:মি: এবং চকরিয়া সদর হতে দক্ষিণে ১০ কি.মি। প্রাকৃতিক শোভামন্ডিত নির্জন উঁচুনিচু টিলা, প্রবাহমান ছড়া, হ্রদ, বিচিত্র গর্জন ও প্রাকৃতিক বৃক্ষ চিরসবুজে জানা-অজানা গাছ-গাছালি অপূর্ব উদ্ভিদ রাজির সমাহার ও ঘন আচ্ছাদনে গড়ে উঠেছে সাফারী পার্কটি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কটি যেন প্রাকৃতিক এক অপরূপ সৌন্দয্যের লীলাভূমি সবুজ ছায়ায় ঘেরা। শীতের বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবছরের মতো চলতি বছরেও হাজারো অতিথি পাখির আগমন ঘটেছে সাফারি পার্কের লেক পয়েন্টে। পার্কের লেকজুড়ে হাজার হাজার লাল পদ্মের মাঝে পাখিদের ওড়াউড়িতে চোখ জুড়িয়ে যায় পার্কে ভ্রমণে আসা দর্শনার্থীদের।

প্রতিবছর ডিসেম্বর মাসে হিমালয়ের উত্তরে শীত নামতে শুরু করে। ফলে উত্তরের শীত প্রধান অঞ্চল সাইবেরিয়া, মঙ্গোলিয়া, চীন, নেপাল, জিনজিয়াং ও ভারত থেকে পাখিরা উষ্ণতার খোঁজে পাড়ি জমায় বিভিন্ন নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলে। এসময় দক্ষিণ এশিয়ার নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল দেশে হাজারো অতিথি পাখির আগমন ঘটে। বাংলাদেশের যেসব এলাকায় অতিথি পাখি আসে তার মধ্যে চকরিয়াস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক হলো অন্যতম।

পার্ক সূত্রে জানা যায়, শীত প্রধান দেশে যখন অতিরিক্ত শীত পড়া শুরু করে তখন অতিথি পাখির আগমন ঘটে সাফারি পার্কের এ লেকে। মূলত উড়ে আসা পাখি সাধারণত বিশ্রাম নেয় লেকের পানিতে ভাসতে থাকা পদ্ম ফুলের উপর। এ অতিথি পাখি গুলো হাঁস জাতীয় পাখি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উড়ে আসা অতিথি পাখির মধ্যে সরালি, পচার্ড, ফ্লাইফেচার, গার্গেনি, ছোট জিরিয়া, পান্তামুখী, পাতারি, মুরগ্যাধি, পাতারী হাঁস, জলকুক্কুট, খয়রা ও কামপাখি রয়েছে। এছাড়া মানিকজোড়, কলাই, ছোট নগ, জলপিপি, নাকতা, খঞ্জনা, চিতাটুপি, বামুনিয়া হাঁস, লাল গুড়গুটি, নর্দানপিনটেল ও কাস্তেচাড়া প্রভৃতি পাখিও মাঝে মধ্যে দেখা মিলে এই লেকে। এরা ডানায় ভর করে হাজার হাজার মাইল পথ পাড়ি দিয়ে চলে আসে এ অঞ্চলে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে স্ব-স্ত্রীক ঘুরতে আসা হাটহাজারী এলাকার ওমান প্রবাসী দর্শনার্থী নজরুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে ওমানে ছিলাম। এক সপ্তাহ পূর্বে দেশে আসছি। প্রবাসে থাকার কারণে ছেলে-মেয়ে নিয়ে তেমন কোথাও বেড়াতে যাওয়ার সুযোগটা হয়নি। ডিসেম্বর মাসে তাদের পরীক্ষা শেষ হওয়ার সুবাদে যে কয়েকদিন স্কুল বন্ধ রয়েছে এরই মধ্যে পরিবারের লোকজন নিয়ে ভ্রমনে বের হলাম। এরই মধ্যে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে ভ্রমনে এসে ছেলে-মেয়ে খুবই আনন্দিত হয়েছে। পার্কের ভ্রমণের মধ্যে সবচেয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ হয়েছে পার্কের ভেতরের জেব্রা বেস্টনির ধারে লেক পয়েন্ট এলাকায় অতিথি পাখিদের কিচিরমিচির শব্দটাই বেশি ভাল লাগছে। যে কোন দর্শনার্থীর মনে দোলা দেবে এ অতিথি পাখির কলকাকলিতে।কোন কিছু পাখির দিকে ছুড়ানো হলেই মনে হয় যেন কোনো বাঁশির সুর শোনা যাচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাধীনতা দিবসে নাইক্ষ্যংছড়িতে পুলিশের কাবাডি প্রতিযোগিতা 

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধান্ঞ্জলি

রাজারকুল আজিজুল উলুম মাদ্রাসা ও এতিমখানায় মহান স্বাধীনতা দিবস পালন

শহীদ মিনারে জেলা বিএনপি’র শ্রদ্ধাঞ্জলি

রত্নগর্ভা রিজিয়া আহম্মদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

শহীদ মিনারে কক্সবাজার প্রেসক্লাবের শ্রদ্ধান্ঞ্জলি

গভীর শ্রদ্ধায় জেলা পুলিশ বিভিন্ন কর্মসূচিতে পালন করলো স্বাধীনতা দিবস

আইনজীবী সমিতির উদ্যোগে গণহত্যা ও মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত

রামিম ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি লাভ করেছে

চট্রগ্রামে গোয়েন্দা পুলিশের পৃথক অভিযানে অস্ত্রসহ আটক ৩

থিমছড়ি অরবিট মডেল একাডেমী এন্ড কেজি মাদ্রাসায় মহান স্বাধীনতা দিবস পালন

শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

নানা আয়োজনে কুতুপালংয়ে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

খরুলিয়ার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী গ্রেফতার

কক্সবাজার কলেজে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালন

পেকুয়ায় পাহাড় কেটে রাস্তা নির্মাণ

‘গণ্ডি’ ছবির জন্য কক্সবাজারে সব্যসাচী

সাইবার অপরাধীদের নজর এখন ব্যাংকিং সেক্টরে

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

ওবায়দুল কাদেরকে কেবিনে স্থানান্তর