cbn  

শাহীন মাহমুদ রাসেল :

দিন যাচ্ছে যেনো চোখের পলকে। বাধন হারা সময়। সকালে কলকাকলীতে উড়ে যাওয়া পাখির ডানায় রোদের গন্ধ মুছে ফেলতে না ফেলতেই সন্ধ্যা নামে। দিন আসে দিন যায়। বাড়ে পৃথিবীর বয়স। আজ পশ্চিমে লালিমা ছড়িয়ে নিকষ আঁধারের নেকাব টেনে সূর্য বিদায় নেবে মহাকালের যাত্রায়। ঝরা পল্লবের মত গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারের পাতা থেকে খসে পড়বে আরো একটি বছর। নববর্ষকে আহ্বান জানিয়ে ফুরাবে এ বছরের সব লেনদেন। বিদায় আলোড়ন সৃষ্টিকারী ২০১৮ সাল। অতঃপর কালপ্রভাতে ‘রবির কর’ দশ দিগন্তে আলোক রেখা ছড়িয়ে চোখ মেলবে নতুন দিনে। নতুন সূর্যকে অভিবাদন। স্বপ্ন আর অপরিমেয় প্রত্যাশার রক্তিম আলোয় উদ্ভাসিত শুভ নববর্ষ ২০১৯, হ্যাপি নিউইয়ার। বছরটিতে ঘটে যাওয়া অনেক ঘটনা জাতিকে করেছে বিমোহিত। আবার অনেক ঘটনা এনে দিয়েছে দুঃখ-বেদনা। আবার কিছু ঘটনা সেই সম্মানকে ম্লান করেছে। সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনা সংবলিত গত বছরের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা গুলির বর্ণনা তুলে ধরা হল-

১. র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে টেকনাফের তিনবারের পৌর কাউন্সিলর একরামুল হক নিহতের ঘটনায় পুরো কক্সবাজারে থমকে গেছে চলমান মাদকবিরোধী অভিযান। শুরু থেকে মাদকবিরোধী হিসেবে পরিচিত হলেও ভুল তথ্য বা অদৃশ্য কোনো কারণে একরামুল হত্যার শিকার হয়েছেন এমন দাবিতে চরম প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে পুরো জেলায়। যা এখনও অব্যাহত রয়েছে।

২. মাতামুহুরী নদীতে ডুবে ৫ শিক্ষার্থীর মৃত্যু। কক্সবাজারের চকরিয়া মাতামুহুরী নদীর পাড়ে ফুটবল খেলতে গিয়ে নদীতে ডুবে ৫ শিক্ষর্থীর মৃত্যু হয়েছে। তারা সবাই চকরিয়া গ্রামার স্কুলের শিক্ষার্থী। স্কুলের অর্ধবার্ষিক পরীক্ষা শেষে দুপুরে দল বেঁধে মাতামুহুরী নদীর পাড়ে ফুটবল খেলতে যায় শিক্ষার্থীরা। সেখানে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল দল হয়ে খেলাও শেষ করে তারা। পরে বিকালে নদীতে গোসল করতে নামে তারা। এসময় ৫ জন ছাত্র নদীতে ডুবে মারা যায়।

৩. কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের খরুলিয়া কেজি অ্যান্ড প্রি-ক্যাডেট স্কুলে অভিভাবক আয়াত উল্লাহকে দড়ি দিয়ে বেঁধে পেটান শিক্ষকেরা,প্রথমে ভর্তি ফি ও বেতন বাড়ানো প্রতিবাদ জানান তিনি। এরপর শিক্ষকদের কাছে জানতে চান, কেন তাঁর সন্তান পরীক্ষায় ভালো ফল করেনি। অভিভাবকের ‘অপরাধ’ বলতে এটুকুই। কিন্তু তাঁর কথায় ক্ষিপ্ত হন শিক্ষকেরা। দুপক্ষের মধ্যে শুরু হয় তর্ক, পরে তা গড়ায় হাতাহাতিতে। একপর্যায়ের শিক্ষকেরা ওই অভিভাবককে বেঁধে ফেলেন। এরপর পিটুনি।

৪. কক্সবাজারে পাহাড় ধসে একই পরিবারের ৪ জন নিহত। অতিবৃষ্টির কারণে কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়া বাঁচামিয়ার ঘোনা এলাকায় পাহাড় ধসে একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২৫ জুলাই) ভোর সাড়ে ৬টার দিকে মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা মালয়েশিয়া প্রবাসী জামাল হোসেনের মেয়ে মর্জিয়া আক্তার (১৬), কাফিয়া আক্তার (১০), আবুল খাইর (১০) ও কাইরুন্নেসা (৬)। ভোরে গুমন্ত শিশুদের উপর পার্শবর্তী পাহাড় ধসে পড়লে ৪ শিশু নিহত হয়।

৫. কক্সবাজারে ৪৩ জলদস্যুর আত্মসমর্পণ। সাগরে জলদস্যুতাসহ বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছয় বাহিনীর ৪৩ সদস্য কক্সবাজারে অস্ত্র-গুলি জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেছে। মহেশখালী আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় মাঠে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে এসব অস্ত্র-গুলি জমা দেন তারা। অনুষ্ঠানে ছয়টি বাহিনীর ৪৩ সদস্য আত্মসমর্পণ করেছেন। তারা দীর্ঘদিন ধরে সাগরে জলদস্যুতার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তাদের মধ্যে ১২ জন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত অপরাধী।

৬. সদরের খরুলিয়ায় দাফনের ১১দিন পর জীবিত উদ্ধার! স্ত্রীর পরকীয়ার কারণে খুন হওয়ার ১১দিন পর জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হলো আবদুল খালেক (২৮) নামে এক যুবককে। অথচ ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যায় কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও কলেজ গেট ব্রিজ এলাকার খালপাড় থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় উদ্ধারের দু’দিন পর পরিবারের লোকজন মরদেহ শনাক্ত করে এবং প্রয়োজনী আইনি আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে দাফনও করা হয়। কিন্তু ঘটনার ১১দিন পর মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে কক্সবাজার ডিবি পুলিশের একটি দল খালেককে সীতাকুন্ড উপজেলার বার আউলিয়া এলাকা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এদিকে মৃত খালেককে জীবিত আটক করে আনার খবরটি ছড়িয়ে পড়লে পুরো এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। সবাই খালেককে এক নজর দেখতে এলাকায় ভিড় জমায়।

৭. মহেশখালীতে দুটি প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত, ৪ পাইলট অক্ষত। মহেশখালী উপজেলা সদরের পুটিবিলা এয়ার মোহাম্মদ পাড়া ও ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের মাইজ পাড়া এলাকায় বিমান বাহিনীর দু’টি প্রশিক্ষণ উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়েছে। এ ঘটনার পর ৪ পাইলটকে ঘটনাস্থলের অদুরে সোনাদিয়ার চর ও হামিদার দিয়া চর থেকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করেছেন আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)।

৮. ২০ জেলেসহ ১৬টি নৌকা নিখোঁজ, ঝড়ো হাওয়া ও প্রবল বৃষ্টির কবলে পড়ে বঙ্গোপসাগরের কক্সবাজার উপকূলে নৌকাডুবিতে এক জেলের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ২০ জেলেসহ ১৬টি মাছ ধরার নৌকা নিখোঁজ রয়েছে। জীবিত উদ্ধার হয়েছেন ১৩ জেলে।

৯. মাংস কম দেয়ায় কনে পক্ষের ওপর হামলা। কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওয়ের প্রিন্স অব ঈদগাঁও কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠানে মাংস কম দেয়ায় কনে পক্ষের ওপর হামলা চালিয়েছে বর পক্ষ। পরবর্তীতে পুলিশকে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে হয়েছে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির সৃষ্টি হলে ক্লাবের চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করেন বর পক্ষ। এ সময় পরিস্থিতি সামাল দিতে গেলে ক্লাবের ম্যানেজার আরফাতকে ছুরিকাঘাত করা হয়। এতে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পরবর্তীতে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ সদস্যরা গিয়ে ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরবর্তীতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।

১০. কক্সবাজারে বসতঘরে একই পরিবারের ৪ জনের লাশ। শহরের গোলদিঘীরপাড় জাদিরাম পাহাড় এলাকায় পারিবারিক কলহের জের ধরে স্থানীয় ব্যবসায়ী মৃত ননি গোপালের ছেলে সুমন চৌধুরী (৩৪) বসতবাড়ির দরজা বন্ধ করে স্ত্রী বেবী চৌধুরী, বড় মেয়ে অবনতিকা চৌধুরী ও ছোট মেয়ে যৌতি চৌধুরীকে গলাটিপে এবং মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হত্যা করে। পরে সুমন চৌধুরী বাড়ির সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

১১. কক্সবাজার শহরের একটি হোটেল থেকে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল জিএম রহিম উল্লাহ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। শহরের ঝাউতলা এলাকার সাগরগাঁও আবাসিক হোটেলের ৩১৬ নম্বর কক্ষ থেকে মরদেহ খাটের ওপর স্বাভাবিকভাবে ঘুমন্ত অবস্থার মত দেখতে পায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •