কক্সবাজার-২ আসনে হামিদ আযাদের নির্বাচন বর্জন (ভিডিও)

ইমাম খাইর, সিবিএনঃ
কেন্দ্র দখল, ভোটে কারচুপি ও আপেল মার্কার সমর্থকদের মারধরসহ নানা অভিযোগে কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) আসনে নির্বাচন বর্জন করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী এএইচএম হামিদুর রহমান আযাদ।
হামিদ আযাদের  প্রধান এজেন্ট জাকের হোসাইন ৩০ ডিসেম্বর সকাল দুুুপুর সাড়ে ১২টায় এক সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন।
তিনি গণমাধ্যমকে জানান, ভোটের আগের  রাত থেকে অধিকাংশ ভোটকেন্দ্রে ব্যালটে সিল মারা হয়েছে। ভোটের দিন সকালেও কেন্দ্র দখল করে ভোট কেটে নেয়া হয়। আতঙ্ক সৃষ্টি করতে চারটি ভোটকেন্দ্রে ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেছে সরকারদলীয় লোকজন। অনেক ভোটারকে বেছে বেছে লাইন থেকে বের করে দেয়া হয়।

বহুল প্রতিক্ষীত গণমানুষের ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের একটি ঐতিহাসিক দিনে মানুষ তার অধিকার প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। কিন্তু ভোর সকাল থেকে জনগণ যা দেখল তাতে মনে হয় এদেশে কোন আইন, আইনের শাসন, মানব অধিকার বলতে কোন কিছু আর অবশিষ্ট রইল না। ভোটের দিন রাত্রে অধিকাংশ কেন্দ্রে ৪০-৬০ শতাংশ নৌকা প্রতীকের ব্যালটে সিল মেরে বাক্স ভর্তি করে। আপেল প্রতিকের এজেন্ডদের বের করে দেওয়া হয়। কোন কোন কেন্দ্রে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। প্রশাসনের কাছে প্রতিকার চেয়ে প্রতিকার না পাওয়া প্রকাশ্যে ছাত্রলীগ ও পুলিশের যৌথ বাহিনী গঠন করে নৌকা প্রতিকে সীল মারে।

আপেল প্রতিকের কর্মী সমর্থকদের মারধর ও গ্রেফতার করা, প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে সাধারণ ভোটার ও মহিলা ভোটার দের বিতাড়িত ও নাজেহাল করা, দায়িত্ব প্রাপ্ত নৌকার সমর্থক পুলিং, প্রিসাইডিং দ্বারা নৌকা মার্কার ব্যালটে সিল মেরে বাক্স ভর্তি করা, আপেল মার্কার সমর্থক ও এজেন্ডদের গ্রেফতার করা, বিভিন্ন কেন্দ্রের দায়িত্ব প্রাপ্ত ভিজিলেন্স টিমকে বারবার অভহিত করার পরও কোন ধরনের পদক্ষেপ না নেওয়া, পুলিশ এবং নৌকা মার্কার সমর্থকদের সাথে একই গাড়িতে অবস্থান করে প্রায় প্রতিটি কেন্দ্রে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে ত্রাস সৃষ্টি করা ,গভীর রাতে প্রায় প্রতিটি কেন্দ্রে দুই তৃতীয়ংশ ব্যালটে সীল মেরে নৌকার বিজয় নিশ্চত করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, আপেল মার্কার সমর্থকদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয় নৌকা মার্কার লোকজন। অনেককে মারধর ও আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের অভিযোগ জানানোর পরও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। অবশেষে বাধ্য হয়ে ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত নেয় বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন জাকের হোসাইন।

সর্বশেষ সংবাদ

পেকুয়ায় পরিক্ষার্থীদের বিদায় ও মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠানের ভবন উদ্বোধন

সনাতনী সেবক সংঘের সভাপতি অধ্যক্ষ অজিত , সম্পাদক সুধীর , সাংগঠনিক বলরাম

চুনতি সূফিনগর যুব ঐক্য পরিষদের ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন

অধ্যাপক হুমায়ুন কবিরের জানাজা ও দাফন সম্পন্ন

ফুলছড়িতে দ্রুতগামী বাসের ধাক্কায় শিশু আহত

মাস্টার আ.ন.ম রফিকুর রশীদের পিতার ইন্তেকাল, রবিবার বাদে জোহর জানাযা

কেজি স্কুলের নৈরাজ্য-৬ : এনসিটিবি বহির্ভূত বইয়ের পর এবার গাইড বাণিজ্য

কক্সবাজারে এশিয়ান টিভির ৭ম বর্ষপূর্তি উদযাপন

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রধানমন্ত্রীর প্রয়াত সামরিক সচিবের স্মরণ সভা উপলক্ষে লোহাগাড়ায় প্রস্তুতি সভা

এসপিসহ পুলিশ কর্মকর্তাদের নাগরিক সংবর্ধনা কাল

এসএসসি পরীক্ষার সূচিতে পরিবর্তন

পল্লীকবি জসিম উদ্দিনের সাহিতকর্ম নিয়ে রামু লেখক ফোরামের সাহিত্য আসর

শহরে বাসায় ঢুকে কিশোরীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ

রাজনীতিতে বাধা-বিপত্তি আসবে, ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবেলা করতে হবে -এড. শামীম আরা স্বপ্না

যশোরের নাভারন রেলষ্টেশন থেকে ২টি স্বর্ণের বার উদ্ধার

অভিযানের মাঠে এমপি জাফর, অবৈধ কাউন্টার সীলগালা

হোয়ানক আব্দুল মাবুদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ে নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

রাক্ষুসে পিরানহা ‘সুস্বাদু চাঁন্দা’ মাছ বলে বিক্রি!

লিবিয়ার পরিস্থিতি এতো জটিল হলো কিভাবে?