বিশেষ প্রতিবেদক:
পীর সাহেব বায়তুশ শরফ আল্লামা কুতুব উদ্দীন (ম জি আ) বলেন, রসুল সঃ এর অনুসরণ ও অনুকরণ করে আওলিয়ায়ে কেরাম সফল হয়েছেন। এখন রসুল সঃ দুনিয়াতে নেই। আছে তাঁর দেখানো পথ ইসলাম। নবীজীর অনুসরণ ছাড়া দুনিয়া আখেরাতে নাজাতের আর কোন পথ নেই। কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের দুইদিন ব্যাপী মাহফিলে ইছালে ছওয়াব উপলক্ষ্যে আয়োজিত মাহফিলে পীর সাহেব আল্লামা কুতুব উদ্দীন এ কথা বলেন।
প্রতি বছরের ন্যায় ফাতেহায়ে ইয়াজ দাহুম উপলক্ষে কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সে সমবেত হয়েছেন দেশ বরেণ্য ওলামা মশায়েক, দ্বীন দরদী আল্লাহ ও রসুল প্রেমিক হাজারো মানুষ।
পীর সাহেব বায়তুশ শরফ বলেন, রসূলে পাক সঃ এর ওসিলায় এই বরকতপূর্ণ মাহফিলের বরকতে আল্লাহ পাক আমাদের গোনাহ মাপ করবেন। আমাদের দেশ ও জনপদে শান্তি সমৃদ্ধি দান করবেন।
তিনি বলেন, হযরত বড় পীর আব্দুল কাদের জিলানী রহঃ রসুলে পাক সঃ এর অনুসরণে রেখেগেছেন মানুষের আত্মার পরিশুদ্ধি ও মানব সেবার অনন্য উদাহারণ। বায়তুশ শরফ সে পথ অনুসরণ করে মানুষের আত্মার পরিশুদ্ধির পাশাপাশি মানব সেবার কাজ করে যাচ্ছে। বায়তুশ শরফ আত্মশুদ্ধির পাশাপাশি মানব সেবার এক অনন্য প্রতিষ্ঠান
১৮  ডিসেম্বর কক্সবাজার বায়তুশ শরপ কমপ্লেক্সে শুরু হয় ফাতেহায় ইয়াজ দাহুম উপলক্ষে মাহফিলে ইসালে সওয়াব। মাহফিলের কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে, ওলামা মশায়েখ সমাবেশ, খতমে বোখারী, ওয়াজ মাহফিল, জিকির মাহফিল, দেশ ও মুসলিম মিল্লাতের শান্তি সমৃদ্ধি কামনায় মোনাজাত। ১৯ ডিসেম্বর বাদ ফজর আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে মাহফিল শেস হবে।
উল্লেখ্য প্রতিবছর অনুষ্ঠিত বায়তুশ শরফের এই মাহফিল কক্সবাজার এলাকা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দ্বীন দরদী মুসলমানদের অংশ গ্রহণে কক্সবাজারের বৃহত্তর মাহফিলে পরিনত হয়ে থাকে। এ বছরও তাই হবে বলে আয়োজকরা আশা করছেন।
মাহফিলে বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের মহাপরিচালক এম এম সিরাজুল ইসলাম, প্রিন্সপ্যাল মাওলানা মাহমুদুল হক, মাওলানা ছিদ্দিক ফারুকী, মাওলানা মামুনুর রশিদ নুরী,
মাওলানা শেহাব উদ্দীন, মাওলানা সালাহ উদ্দীন বেলাল, মাওলানা রিদুয়ানুল হক, মাওলানা ওমর ফারুক ও মাওলানা শফিউল আলম প্রমূখ।
মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন দেশ বরেণ্য শত শত ওলামা-মশায়েক ও দ্বীনদরদী হাজার হাজার মানুষ।
বড়পীর হযরত আব্দুল কাদের জিলানী রহঃ ছিলেন নবীজীর পদাঙ্ক অনুসারী।
উলেলেখ্য কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স অত্র এলাকায় এক অনন্য প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে। একান রয়েছ, মসজিদ কমপ্লেক্স, জব্বারিয়া একাডেমী, চক্ষু হাসপাতাল, শাহ কুতুব উদ্দীন আদর্শ মাদরাসা ও এতিম খানা।
বৃহস্পতিবার উদ্বোদন হবে শাহ কুতুব উদ্দীন আদর্শ মাদরাসা ভবন ও জব্বারিয়া একাডেমীর আরো একটি নতুন ভবন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •