ছবির ক্যাপশন-কুতুবজুমের পথসভায় বক্তব্য রাখছেন আশেক উল্লাহ রফিক এমপি।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

নৌকা প্রতীকের জন্য ভোট চেয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী আশেক উল্লাহ রফিক এমপি যেদিকেই যাচ্ছেন সেদিকেই জনতার ঢল নামছে। আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কুতুবজুম ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে গনসংযোগ ও পথসভায় এক অভুতপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা হয়। প্রতিটি এলাকায় নৌকা প্রতীকের পক্ষে স্লোগান দিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে স্বাগত জানান স্থানীয় লোকজন। পথসভায় আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন, নৌকা প্রতীক বিজয়ী হলে সোনাদিয়াকে ঘিরে যে পর্যটনের পরিকল্পনা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রহন করেছেন তা খুব দ্রুত বাস্তবায়ন হবে। সাগরের মোহনা জলদস্যুমুক্ত করে জেলেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। অবনতিশীল আইনশৃংখলা পরিস্থিতি এখন সম্পুর্ণ নিয়ন্ত্রণে এসেছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে রক্ষা করতে গড়ে তুলা উপকূলীয় সবুজ বেস্টনী অক্ষত আছে কঠোর তদারকির কারণে। এক সময় এলাকা ছিল জলদস্যুদের অভয়ারণ্য। প্যারাবন কেটে তৈরী করা হত চিংড়ি ঘের। সেই সময়ের ক্ষত এখনো পুষিয়ে উঠেনি সোনাদিয়া।

তিনি আরো বলেন, এই অবহেলিত এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়নের কারণে এই এলাকার গুরুত্ব আগের চেয়ে অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। শিক্ষায় পিছিয়ে পড়া কুতুবজুম অনেক এগিয়ে গেছে। ইতোমধ্যে কুতুবজুমে স্থাপন হচ্ছে একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল। এটি সম্পন্ন হলে কুতুবদিয়া কুতুবজুম ইউনিয়ন অর্থনৈতিকভাবে আরো স্বাবলম্বি হবে এবং বেকারদের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে।

তিনি আরো বলেন, সারা বিশ্বে এখন বাংলাদেশ উন্নয়নের রুল মডেল। সারা বিশ্বে যখন অর্থনৈতিক মন্দা চলছে তখন বাংলাদেশের বিস্ময়কর উত্থান সারা বিশ্বকে হতবাক করে দিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশের অগ্রযাত্রার সাথে উন্নয়নে সামিল হয়েছে মহেশখালী উপজেলা। মহেশখালীর সাথে কক্সবাজারের সংযোগ সেতু নির্মাণের জন্য পরিকল্পনা রয়েছে। আসন্ন নির্বাচনে নৌকা প্রতীক বিজয়ী হলে সংযোগ সেতু নির্মাণকে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেওয়া হবে। গতকাল তিনি কুতুবজুমের কালামিয়ার বাজার, বটতলা, ঘটিভাঙ্গা, মেহেরিয়া পাড়া ও তাজিয়াকাটায় পথসভায় বক্তব্য রাখেন। প্রতিটি পথসভায় স্বতস্ফুর্তভাবে মানুষ অংশগ্রহন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মহেশখালীর পৌর মেয়র মকছুদ মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাস্টার লিয়াকত আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ রুহুল আমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আমিরুজ্জামান আনজু, উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এডঃ নুরুল হুদা, উপজেলা আওয়ামী লীগের কোষাধক্ষ্য ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন খোকন, উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মোস্তফাু আনোয়ার চৌধুরী, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আশহাদ উল্লাহ সায়েম, উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মাস্টার মাহমুদুল করিম, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক এডঃ শেখ কামাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের নুরুল আমিন খোকা, আবদুর রহিম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুরত আলম, সাধারণ সম্পাদক রবি আলম, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া সিকদার, সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হালিমুর রশিদ, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি কলিম উল্লাহ ইমন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •