প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনে আওয়ামীলীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের সংসদ সদস্য প্রার্থী চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সদ্য সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ জাফর আলম বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমস্ত বাধা অতিক্রম করে একের পর এক উন্নয়ন কাজ করে যাচ্ছেন। গণতন্ত্র ও দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আওয়ামী লীগ সরকারের কোনো বিকল্প নেই। তাই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিয়ে আবারও আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতায় আনতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ছোঁয়ায় কক্সবাজার জেলা পাল্টে গেছে। মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র, রেল লাইনসহ মেগা প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার মেধাবী নেতৃত্বে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। তেমনি বর্তমান সরকার ক্ষমতায় থাকার সুবাধে চকরিয়া-পেকুয়ার প্রতিটি এলাকায় দেখার মত উন্নয়ন হয়েছে। সেই জন্য চকরিয়া-পেকুয়ার সর্বস্তরের জনগণকে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’

জাফর আলম আরো বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা বিরোধীরা দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ডকে বাধাগ্রস্ত করে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে বিভিন্ন ভাবে ষড়যন্ত্র করছে। এসব ষড়যন্ত্র আপনাদের সতর্ক থেকে প্রতিবাদ করতে হবে। আওয়ামী লীগ সরকার মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সরকার। এদেশে মুক্তি যোদ্ধাদের সর্বোচ্ছ সম্মানিত করেছেন আওয়ামী লীগ।’

চকরিয়া-পেকুয়ার ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা এমন কাউকে ভোট দিবেন না। যারা মৌসুমী ফলের মত প্রার্থী হয়েছেন। তাকে জনগনই গ্রহণ করেনি। তিনি পাঁচ বছর এমপি থাকাকালে এলাকায় উন্নয়ন না করায় ভোটারদের কাছে যেতে পারছে না। আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের জোয়ারে বিএনপি ভেসে গেছে।’

আজ সোমবার ১৭ডিসেম্বর সকালে চকরিয়া উপজেলা পশ্চিম বড় ভেওলা, বরইতলী, হারবাংসহ গণসংযোগ পরর্বতী পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আমিনুর রশিদ দুলাল, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এস এম গিয়াস উদ্দিন, জিএম আবুল কাসেম, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, মাতামুহুরী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পশ্চিম বড় ভেওলা ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বাবলা, সাধারণ সম্পাদক ও সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, সিনিয়র সহ-সভাপতি এসএম জাহাংগীর আলম বুলবুল, সহ-সভাপতি মকছুদুল হক ছুট্টু, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম লিটু, সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরী, কক্সবাজার জেলা পরিষদের সদস্য ও পেকুয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জাহাংগীর আলম, চিরিঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ জসীম উদ্দিন, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম, সহ-সভাপতি সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম, উজানটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম শহিদুল ইসলাম, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোক্তার আহমদ চৌধুরী, এমআর চৌধুরী, সহসভাপতি ফজলুল করিম সাঈদী, ছৈয়দ আলম কমিশনার, যুগ্ম সম্পাদক জামাল উদ্দিন জয়নাল, যুগ্ম সম্পাদক চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম, শাহনেওয়াজ তালুকদার, পেকুয়ার রাজাখালীর বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ছৈয়দ নূর, সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বাবুল, টইটং ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদুর ইসলাম চৌধুরী, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম, শওকত ওসমান চেয়ারম্যান, সাংবাদিক মিজবাউল হক, বদরখালী ইউপি চেয়ারম্যান খাইরুল বশর, বদরখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নুরে হোছাইন আরিফ, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন টিটু, আওয়ামীলীগ নেতা আমিনুল করিম, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি তপন কান্তি দাশ, সহ-সভাপতি অধ্যাপক মোসলেহ উদ্দিন মানিক, এড. নাছির উছির, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক রতন কুমার সুশীল, ফেরদৌস ওয়াহিদ, সেলিম উদ্দিন লিটন, কাউন্সিলর রেজাউল করিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান লিটন, নজরুল ইসলাম লিটন, ফরিদুল ইসলাম, পেকুয়া উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছেনুয়ারা বেগম এমইউপি, আওয়ামীলীগ নেতা মিফতাব উদ্দিন চৌধুরী, পূর্ববড় ভেওলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ হোসেন মেম্বার, পশ্চিম বড়ভেওলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল, চকরিয়া পৌরসভা কুষকলীগের সভাপতি সুলাল কান্তি সুশীল, আলহাজ নজরুল ইসলাম, আমির হোসেন আমু, চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহীদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছির, পেকুয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বারেক, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শওকত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক বাবলা দেবনাথ, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি জামাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সাইফ উদ্দিন মামুন, চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি হাসানগীর হোছাইন, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সোহেল, সাবেক ছাত্রনেতা হেফাজ সিকদার, বদরখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ইউনুছ সিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক হামিদ, সাবেক ছাত্রনেতা রনী চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ হায়দার আলী, সাবেক সভাপতি শেফায়েতুল কবির চৌধুরী বাপ্পী, সাবেক সম্পাদক সাজিদ হোসেন শাকিব, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সদস্য সাদ্দাম হোসেন মিঠু, পেকুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কফিল উদ্দিন বাহাদুর, চকরিয়া পৌরসভা শ্রমিকলীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন ধুলু, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাম্মদ মারুফ, সাধারণ সম্পাদক রুবেল মাহমুদ, মাতামুহুরী থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক তানবিন ইসলাম সাইমুন চকরিয়া পৌরসভা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা পারভেজ, পেকুয়া ছাত্রলীগ নেতা শওকত, আমিনুল ইসলাম ও ছাত্রনেতা আবদুল বারেক টিপু প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •