ছবির ক্যাপশন- মহেশখালীতে কৃষকলীগের সমাবেশে বক্তব্য রাখছেন আশেক উল্লাহ রফিক এমপি।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

কক্সবাজার-২(মহেশখালী-কুতুবদিয়া) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেছেন, আগামি জাতীয় সংসদ নির্বাচন জাতির জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাড়িয়েছে। এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে হারাতে দেশের সকল ষড়যন্ত্রকারীরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। তাদের একটিই লক্ষ্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ভুলন্ঠিত করে দেশকে পাকিস্তানের ভাবধারায় নিয়ে একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করা। তাই এদের রুখতে দেশ প্রেমিক সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। তারা একাত্তরের পরাজয়ের প্রতিশোধ নিতে চায়। তাদের প্রত্যাশা পুরনের জন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়েছে। দেশে জঙ্গীবাদ সৃষ্টি করে ক্ষমতা দখলের ব্যর্থ চেষ্টা করেছে এ চক্র। এতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার লেবাসধারী কতিপয় ব্যক্তিও জড়িত রয়েছে। যারা নির্বাচনে বার বার জামানত হারিয়েছে আবার কেউ বা নৌকা প্রতীকের জোয়ারেও পরাজিত হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, নৌকা উন্নয়নের প্রতীক, নৌকা স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা গনমানুষের প্রতীক। এই প্রতীকের বিরুদ্ধে যারাই ষড়যন্ত্র করেছে তারা এখন রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। বর্তমানে যেভাবে উন্নয়ন হচ্ছে এটিই তাদের মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। দেশে কিছু হউক তারা কখনো চায়নি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তাদের চিহ্নিত করতে পেছেন বিধায় দল থেকে তাদের বিদায় করে দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন মহেশখালীতে মেগা প্রকল্পের জন্য যে জমি অধিগ্রহন করা হচ্ছে ওই জমির ক্ষতিপুরণের টাকা বৃদ্ধি করতে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করার পর এখন মুল্য বৃদ্ধি করা হয়েছে। প্রয়োজনে আবারো মুল্য বৃদ্ধির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করা হবে। গতকাল বেলা ১২টায় হোয়ানক বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মহেশখালী উপজেলা কৃষকলীগ আয়োজিত বিজয় দিবস উদযাপনের প্রস্তুতি ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এ কথা বলেন। উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি অধ্যাপক সরওয়ার কামাল’র সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জেলা পরিষদ সদস্য আনোয়ার পাশা চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন মহেশখালী উপজেলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ফরিদুল আলম, হোয়ানক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, হোয়ানক আওয়ামী লীগের সভাপতি মির কাসেম, সাধারণ সম্পাদক জাফর আলম জফুর, উপজেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক মাস্টার আমিন শরীফ, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু ছালেহ, সহ-সভাপতি একরামুল হক, সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আলতাজ উদ্দিন, পৌর শাখার সভাপতি শামসুল আলম, কালারমারছড়ার সভাপতি সেলিম উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ হোছাইন, হোয়ানকের সভাপতি আমান উল্লাহ, বড়মহেশখালীর সভাপতি শফিউল আলম,সাধারণ সম্পাদক ফজল ভান্ডারী, শাপলাপুরের সভাপতি মোক্তার আহমদ, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোছাইন, কুতুবজুমের সভাপতি জয়নাল আবেদীন, সাধারণ সম্পাদক আবুল ফজল, ছোট মহেশখালীর সভাপতি জিয়াউর রহমান, সাধারণ সম্পাদক বশির আহমদ, মাতারবাড়ির সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, ধলঘাটার সভাপতি সরওয়ার আজম ও সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •