cbn  

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডঃ সিরাজুল মোস্তফা বলেছেন, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনে আশেক উল্লাহ রফিক’র মত একজন পরিচ্ছন্ন নেতাকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দিয়ে এই দুই উপজেলার ৫ লাখ মানুষকে ধন্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিগত ৫ বছরে মহেশখালী ও কুতুবদিয়ায় যে অভুতপুর্ব উন্নয়ন হয়েছে তা দৃষ্ঠান্ত হয়ে থাকবে। তাই এলাকার উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে ৩০ ডিসেম্বর নৌকায় ভোট দিয়ে বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। তিনি মঙ্গলবার সকাল ১০টায় মহেশখালী বঙ্গবন্ধু সরকারি মহিলা কলেজ প্রাঙ্গনে মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিজয় দিবসের আলোচনা সভা ও প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এ কথা বলেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার পাশা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, এখন মহেশখালীর আলোয় আলোখিত হবে বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মহেশখালী ও কুতুবদিয়া উপজেলাকে ঘিরে যে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহন করেছেন তা বাস্তবায়ন হলে এই দুইটি উপজেলা সিঙ্গাপুরে পরিণত হবে। ব্যাপক কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন আর কোন দলাদলি নয়, নৌকা প্রতীক শেখ হাসিনার। তাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন, ইতোমধ্যে লবণ আমদানি বন্ধ করে লবণের ন্যায্যমুল্য নিশ্চিত করেছি। মহেশখালীতে উৎপাদিত মিষ্টিপান বিদেশে রপ্তানী করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ায় মিষ্টিপানের ন্যায্যমুল্য নিশ্চিত হয়েছে। কয়লা বিদ্যুৎসহ বিভিন্ন মেগা প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহনকৃত জমির ক্ষতিপুরণ বৃদ্ধি করতে যথাযত ব্যবস্থা নেওয়ায় ক্ষতিপুরণের টাকা বৃদ্ধি করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কখনো দেশের জনগনের ক্ষতি হয় এমন কাজ করেন না। তাই তিনিই এখন দেশের খেটে-খাওয়া মানুষের এক মাত্র আশ্রয় স্থল। তিনি আরো বলেন, দেশ এখন দুইভাগে বিভক্ত। এক পক্ষ দেশেকে লুটপাটের স্বর্গ রাজ্য বানাতে চায় আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়ন তরান্বিত করতে চান। ইতোমধ্যে মহেশখালীতে বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন জোট সরকারের সময়ে শুধু খাম্বা দেওয়া হয়েছিল বিদ্যুৎ দিতে পারে নি। তাই নৌকার বিজয় নিশ্চিত করুন আগামিতে আরো উন্নয়ন হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডঃ আবু তালেব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহম্মদ রুহুল আমিন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্রজগোপাল ঘোষের সঞ্চালনায় ও কুতুব উদ্দিন এলাহীর কোরআন তেলেয়াতের মাধ্য দিয়ে শুরু হওয়া সভায় বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা ডাঃ নুরুল আমিন, জেলা আওয়ামী লীগে সহ-সভাপতি এম আজিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডঃ রণজিত দাশ, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মহেশখালীর পৌর মেয়র মকছুদ মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফরিদুল আলম, জেলা পরিষদ সদস্য মাস্টার রুহুল আমিন, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি অধ্যাপক সরওয়ার কামাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডঃ সাইদুর রহমান মজুমদার, সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান উল্লাহ বাচ্চু, ধলঘাটা ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল হাসান, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সাজেদুল করিম, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক রফিকুল ইসলাম কাউন্সিলর, শাপলাপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি ডাঃ ওসমান সরওয়ার, কালারমারছড়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল আলম বদন, মাতারবাড়ি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আবু হায়দার, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি মোহাম্মদ জাকারিয়া, মাওলানা ছিদ্দিক আহমদ, মাওলানা হেলাল উদ্দিন, জেলা পরিষদ সদস্য মাশরফা জন্নাত, মাতারবাড়ির চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মংরিপ্রু, কুতুবজুম আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন খোকন, ছোট মহেশখালীর চেয়ারম্যান জিহাদ বিন আলী, শাপলাপুরের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন, হোয়ানক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রিয় সদস্য সরওয়ার আজম, যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক এডঃ শেখ কামাল ও য্গ্মু আহবায়ক সেলিম উল্লাহ সেলিম। এ ছাড়া উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •