cbn  

|| মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী ||

কক্সবাজার-৩ আসনে বিএনপি তথা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত একক প্রার্থী লুৎফুর রহমান কাজল বলেছেন-ভোট মানুষের রাষ্ট্রীয় মৌলিক অধিকার। এই ভোট স্বাধীনভাবে প্রয়োগ করে সকল ভোটারকে রাষ্ট্রীয় তাদের স্ব স্ব মালিকানা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর এই ভোট বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রতীক ধানের শীষে প্রদানের আহবান জানিয়ে লুৎফুর রহমান কাজল বলেন-নির্বাচনকে আন্দোলনের অংশ হিসাবে নিয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও প্রখ্যাত মুফাসসির আল্লামা মাওলানা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীকে কারামুক্ত করে এদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। ধানের শীষ প্রতীক পাওয়ার পর নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর প্রথম দিনে ১০ ডিসেম্বর সোমবার লুৎফুর রহমান কাজল বৃহত্তর ঈদগাঁও এলকার বিভিন্ন এলাকায় পথসভা, মতবিনিময় ও গণসংযোগকালে তিনি ভোটারদের উদ্দ্যেশে উপরোক্ত কথা বলেন। লুৎফুর রহমান কাজলের গণসংযোগকালে হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালার মতো হাজার হাজার ভোটার-সমর্থক লুৎফুর রহমান কাজলের সাথে সাথে ছিলেন। পথসভা গুলো অনেকটা জনসভায় রূপ নেয়। এসময় লুৎফুর রহমান কাজলের সাথে কক্সবাজার জেলা বিএনপি’র সহ সভাপতি আলহাজ্ব এম.মমতাজুল ইসলাম, ঈদগাহ সাংগঠনিক উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি শহীদুর রহমান শহীদ, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলম, আবদুস সালাম, আলমগীর তাজ জনি, আজমগীর, মোজাফফর হোসাইন সুমন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সাবেক সংসদ সদস্য লুৎফুর রহমান কাজল একইদিন ঈদগাহ বাজারে ধানের শীষ প্রতীকের প্রধান নির্বচনী কার্যালয় উদ্বোধন করেন। এদিকে, ধানের শীষ প্রতীক বরাদ্দ পেয়ে নির্বচনী প্রচারনা শুরুর প্রথমদিনে কক্সবাজার পৌরসভার ২৩ টি সাংগঠনিক ওয়ার্ড থেকে পৃথক ২৩ টি এবং কক্সবাজার সদর উপজেলা ও রামু উপজেলার ২২ টি ইউনিয়ন থেকে পৃথক ২২ টি ধানের শীষের সমর্থনে নির্বাচনী মিছিল বের হয়। মিছিল গুলো শেষে ঐসব এলাকায় পৃথক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। মিছিল ও পথসভায় ধানের শীষের হাজার হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থকদের পদভারে প্রকম্পিত হয় সদর, রামু ও কক্সবাজার পৌরসভার সমগ্র এলাকা। ১০ ডিসেম্বর সোমবার ধানের শীষের সমর্থনে অনুষ্ঠিত মিছিল, পথসভা, গণসংযোগে হাজার হাজার ভোটারদের সরব অংশগ্রহণ জানান দিয়েছে-৩০ ডিসেম্বর ধানের শীষের বিজয়ের জন্য মানুষ প্রহর গুনছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •