cbn  

প্রেস  বিজ্ঞপ্তি:

হোপ ফাউন্ডেশন কতৃক পরিচালিত ‘ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি’ স্কুল প্রতি বছরের ন্যায় এই বছরও সারা বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধের ১৬ দিনব্যাপি কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বিগত ০৯-১২-২০১৮ ইং তারিখ একটি বিশেষ অনুষ্ঠান উদযাপন করেছে। হোপ ফাউন্ডেশন একটি জেন্ডার সংবেদনশীল প্রতিষ্ঠান, যেখানে ৮৫% নারী কর্মী প্রতিনিয়ত সম্মানের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজারের মানবিকার নেত্রী মনোয়ারা বেগম মুন্নি-সভাপতি, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন, (রামু, উখিয়া ও টেকনাফ অঞ্চল)। দীর্ঘ ২৭ বছরের চাকুরী জীবনে মা ও শিশুদের নিয়ে কাজ করার অসামান্য সাফল্যে নেত্রী মনোয়ারা বেগম মুন্নি দুইবার জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। তিনি তার জীবনের সাফল্যের বিভিন্ন দিক সুনিপূণভাবে তুলে ধরেন। মিডওয়াইফারী ছাত্রীদের বিভিন্ন বিষয়ে উৎসাহ দেন এবং জীবনে কিভাবে সকল বাধাকে পেরিয়ে এগিয়ে যেতে হবে তা নিয়ে বাস্তবসম্মত আলোচনা করেন।

প্রজেক্ট ম্যানেজার ইয়াসমিন আক্তারের সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন তারা হলেন কোর্স কো-অর্ডিনেটর মোছাম্মৎ সারমিন নেসা, ডাঃ তারেকুল ইসলাম, সুলতানা আফরিন তোফা, তানিয়া, রেহেনা আক্তার, জান্নাতুল আরফা, মোছাম্মদ মিনজু আরা, শামীম রেজা খান সহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

ফ্যাকাল্টি সুলতানা আফরিন তোফা নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেনটেশন উপস্থাপন করেন এবং পরে একটি কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করার মাধ্যমে ছাত্রীদের পুরস্কৃত করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন- হোপ ফাউন্ডেশন এর কান্ট্রি ডাইরেক্টর কে এম জাহিদুজ্জামান। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন নারী-পুরুষ পরস্পর পরস্পরের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করলে সহিংসতা থাকবে না আর এজন্য নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সকলকেই ঐক্যবন্ধভাবে কাজ করতে হবে।

এখানে উল্লেখ্য যে হোপ ফাউন্ডেশন ২০১২ সাল থেকে ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সটি ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতায় পরিচালনা করছে, যার অর্থায়ন করছে ব্রিটিশ সরকার (ডিএফআইডি)।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •