সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেছেন, পৌরসভার যে কোন ভাল কাজে জেলা প্রশাসন সবসময় পাশে থাকবে। কারন এ পৌরসভা অন্যসব পৌরসভার চেয়ে ভিন্ন। গুরুত্বপূর্ণ এ জেলা শহরে দেশী-বিদেশী পর্যটকরা শুধু ভ্রমন করতেই আসেননা, মাসের পর মাস অবস্থানও করেন। শুধু তাই নয়, আমরা নিজেরাও (চাকরিজনিত কারনে) পৌর এলাকায় বসবাস করি। সুতরাং নবনির্বাচিত মেয়র মুজিবুর রহমান তাঁর পরিষদকে সাথে নিয়ে নিজ যোগ্যতায় এ পৌরসভাকে দেশের মডেল পৌরসভায় রূপান্তর করবেন সেই আশাবাদ নি:সন্দেহে ব্যক্ত করা যায়। সে ক্ষেত্রে শিক্ষা, সংস্কৃতি ও ক্রীড়াকে বিশেষ মূল্যায়ন করে মেয়রের প্রতি সার্বিক উন্নয়ন কর্মকান্ড তরান্বিত করার আহবান জানান জেলা প্রশাসক।

শনিবার (৮ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন, কক্সবাজার শাখার সভাপতি খোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কক্সবাজার পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মুজিবুর রহমান ও কাউন্সিলরদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা ও সংবর্ধিত অতিথি মেয়র মুজিবুর রহমান।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ কাউন্সিলর হেলাল উদ্দিন কবির, পৌরসভার সচিব রাসেল চৌধুরী, নির্বাহী প্রকৌশলী নুরুল আলম, পৌর প্রিপ্যারটরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম ও এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মাবুদ রাজন।

এছাড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আদিবুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) বাবুল চন্দ্র বণিক, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম, অর্থ সম্পাদক আবদুল খালেক, প্যানেল মেয়র-৩ কাউন্সিলর শাহেনা আকতার পাখি, কাউন্সিলর আক্তার কামাল আজাদ, মিজানুর রহমান, দিদারুল ইসলাম রুবেল, সাহাব উদ্দিন সিকদার, ওমর ছিদ্দিক লালু, আশরাফুল হুদা ছিদ্দিকী জামশেদ, রাজ বিহারী দাশ, সালাউদ্দিন সেতু, নুর মোহাম্মদ, কাজী মোরশেদ আহাম্মদ বাবু, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর ইয়াছমিন আক্তার, জাহেদা আক্তার ও নাছিমা আক্তার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •