কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া:
ভোটার ও দলীয় নেতাকর্মীরা ভাবছেন শাহীন আক্তার কী পারবে নৌকার হাল শক্ত করে ধরে রাখতে? আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা শাহীনাকে মনোনয়ন দেয়ায় খুশি হতে পারেননি। এতে নেতাকর্মীদের মধ্যে হতাশা ও নিস্তেজভাব বিরাজ করছে।

অনেকেই মনে করেন, আব্দুর রহমান বদির যে জনপ্রিয়তা রয়েছে তা তার বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে হ্রাস পেতে শুরু করেছে। সম্প্রতি এক জনসভায় বিএনপির প্রার্থী সাবেক সাংসদ ও হুইফ শাহজাহান চৌধুরীকে উদ্দেশ্য করে যে অশালীন বক্তব্য দিয়েছেন, তা সাধারণ ভোটাররা এবং আওয়ামী লীগের নেতারাও সহজভাবে নিতে পাচ্ছেন না। ফেসবুকসহ নির্বাচনী এলাকায়ও পড়েছে ব্যাপক প্রভাব। চলছে নানা আলোচনা। আর জয় পরাজয়ের হিসাবনিকাশ।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভাগ্যবান আসন কক্সবাজার-৪ উখিয়া-টেকনাফে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের ডজন খানেক যোগ্য ও দলের জন্য ত্যাগি নেতা থাকার পরও এমপি আব্দুর রহমান বদির স্ত্রীকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে দায়িত্বশীল নেতারা মুখে কুলুপ আটঁলেও অধিকাংশ নেতা ও সাধারণ কর্মীরা আগামী নির্বাচণে শাহীন আক্তারকে নিয়েই মাঠে রয়েছেন।সচেতন মহল মনে করছেন নির্বাচনে জামায়াত বিএনপি একাট্রা হয়ে কাজ করবে। তাতে পাল্টে যেতে পারে ভোটের মাঠের দৃশ্যপট। নির্বাচনকে ঘিরে নেতাকর্মীরাও হয়েছেন উজ্জীবিত। বিষয়টি ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন স্থানীয় ভোটাররাও।

বিএনপি নেতা সালাম সিকদার বলেন, জনগণের আস্থা আর ভালোবাসায় বিএনপি প্রার্থী চার বারের নির্বাচিত সাংসদ ও হুইফ শাহজাহান চৌধুরী বিপুল ভোটে জয়ী হবে ইনশাআল্লাহ। উখিয়া-টেকনাফ নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রচার চলছে পুরোদমে। প্রার্থীরা ভোটারদের কাছে যাচ্ছেন, গণসংযোগ করছেন। প্রচারে উভয় দল রয়েছে শক্ত অবস্থানে।

রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা উখিয়া-টেকনাফ। বাংলাদেশে ৩০০ আসনের মধ্যে কক্সবাজার-৪ উখিয়া-টেকনাফ আসনটি রোহিঙ্গাদের কারণে বিশ্ব নেতাদের কাছে অতি পরিচিত একটি নাম। ভোটাররা এবার যোগ্য প্রার্থীকেই ভোট দেবেন বলে মত প্রকাশ করছেন। এমপি আব্দুর রহমান বদির স্ত্রী শাহীন আক্তার ও বিএনপির শাহজাহান চৌধুরী বৈধ প্রার্থী ঘোষণার পর গুরুত্বপূর্ণ এ আসনে নৌকা নাকি ধানের শীষ কে জয়ী হয়ে সরকার গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে এ নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ।

একজন দক্ষ সাবেক সাংসদ অন্যজন আওয়ামী রাজনীতিতে নতুন। ভোটাররা উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে নৌকায় ভোট দেবে বলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মনে করছেন। অপরদিকে যোগ্য প্রার্থী বাছাই করে ধানের শীষে ভোট দেবে বলে বিএনপির নেতাকর্মীরা মনে করছেন। নির্বাচনের দিনক্ষণ যত ঘনিয়ে আসছে ততই উত্তেজনা বাড়ছে রাজনৈতিক অঙ্গনে।

সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন মেরুকরণে উখিয়া-টেকনাফের রাজনৈতিক অঙ্গনে আরো উত্তপ্ত হয়ে ওঠার আশঙ্কা করছেন সচেতন রাজনৈতিক মহল। নৈরাজ্য সৃষ্টির আশঙ্কায় রয়েছে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থাও।

তাদের মতে, নির্বাচনের আগে ও নির্বাচনের দিন চোরাগোপ্তা হামলা বেড়ে যেতে পারে। এসব হামলার শিকার হতে পারেন কর্তব্যরত পুলিশ ও রাজনৈতিক নেতারা। গত ১ ডিসেম্বর বর্তমান সাংসদ আব্দুর রহমান বদির গাড়ি লক্ষ্য করে দুর্বৃত্তরা চোরাগোপ্তা হামলা চালালে অল্পের জন্য তিনি প্রাণে রক্ষা পান।তবে এঘটনায় বিএনপির নেতা কর্মীদের আসামী করে মামলা করায় নির্বাচনে আওয়ামীলীগ বেকায়দায় পড়তে পারেন বলে স্হানীয় ভোটাররা মনে করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •