উখিয়া সংবাদদাতা:
উখিয়ায় ভাড়াটে সন্ত্রাসীসহ আপন ভাতিজাদের বেপরোয়া হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে চাচা। ৬ ডিসেম্বর সকাল ৭টার দিকে পালংখালী ঘোনারপাড়ায় ঘটনাটি ঘটে।
আহত চাচা মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন (৪৪) মৃত হাজি ছমি উদ্দিনের ছেলে। তাকে উদ্ধার করে কক্সবাজার শহরের একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করায়। তিনি পেশায় একটি নামে হেফজখানার শিক্ষক।
ভিকটিম হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন জানান, বসতভিটার জমি নিয়ে বড় ভাই জাগের হোসেনের সাথে দীর্ঘদিন বিরোধ ছিল। সেই বিরোধ নিয়ে উখিয়া থানায় বিচার চলমান। বিচার চলাকালে ভাতিজা মোহাম্মদ আলম, হেলাল উদ্দিন, মোহাম্মদ শাহজাহান, শাহাব উদ্দিনসহ কিছু ভাড়াটে সন্ত্রাসী তার বাড়ীতে ঢুকে হামলা করে।
ভিকটিমের অপর ভাতিজা হাফেজ সালাহ উদ্দিন অভিযোগ করেন, তাদের পারিবারিক জমিজমা নিয়ে থানায় বিচার চলছে। তিনি নিজেই বাদি হয়ে উখিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। কিন্তু থানার বিচার প্রক্রিয়াকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে আক্রমণ করে আপন ভাতিজারা।
তিনি আরো জানান, স্থানীয় আবুল মনজুর প্রকাশ পেট্টা মনজুর নামের এক ব্যক্তি গোপনে তাদের অংশিধারী জমি ক্রয় করে। এর পর থেকে অংশীদারদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। সেই বিরোধের ধারাবাহিকতায় হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ মোশারফ হোসেনের উপর হামলার ঘটনাটি ঘটে।
এলাকাবাসী জানিয়েছে, অভিযুক্ত মোহাম্মদ আলম চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী। মাদকের মামলায় তিনি গ্রেফতার হয়ে চট্টগ্রাম কারাগারে বন্দি ছিলেন। তিনি কারামুক্ত হয়ে ফের মাদক ব্যবসা শুরু করেছেন। টাকার জোরে কাউকে পরোয়া করেনা।
উখিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, পৈত্রিক জমিজমা সংক্রান্ত একটি অভিযোগের বিচার চলছে। এমন সময় হামলার ঘটনা উচিৎ হয়নি। ঘটনার তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •