cbn  

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার-৪ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মাস্টার এম.এ মনজুরের প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

রবিবার (২ ডিসেম্বর) সকাল দশটায় কক্সবাজার হিল ডাউন সার্কিট হাউজ-এর সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বাছাইকালে এমপিওভুক্ত শিক্ষক হিসাবে মাস্টার এমএ মনজুরের মনোনয়নপত্র বৈধতার প্রশ্নে সিদ্ধান্ত দেননি রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন।
পরে সন্ধ্যা ৬ টার দিকে চূড়ান্ত যাচাই বাছাই করে তার প্রার্থীতা বৈধ বলে সিদ্ধান্ত দেয়া হয়।
এসময় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মাসুদুর রহমান মোল্লা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আশরাফুল আফসার, জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ বশির আহমদ, কক্সবাজার সদর নির্বাচন অফিসার শিমুল শর্মাসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মাস্টার এম.এ মনজুর পেশাগত জীবনে একজন স্বনামধন্য শিক্ষক। পাশাপাশি রাজনীতি ও সামাজিক কর্মের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত।
তিনি ১৯৮৪ সালে নতুন বাংলা ছাত্র সামাজের কক্সবাজার কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। সেই থেকে বর্তমান সময়কাল পর্যন্ত জাতীয় পার্টির রাজনীতির সাথে সক্রিয়। দীর্ঘ ৩৪ বছরের রাজনৈতিক জীবনে তিনি জেলা, উপজেলার বিভিন্ন পদপদবীতে ছিলেন। এলাকাবাসী তাকে নির্লোভ ও পরোপকারী হিসেবে চেনে।
মাস্টার এম.এ মনজুর টেকনাফ উপজেলার প্রাচীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শামলাপুর উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, স্থানীয় বেগম লাইলা নূর আদর্শ বালিকা দাখিল মাদরাসা ও আল আরাফাহ মডেল এাকডেমির প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক।
টেকনাফের উপকূলীয় ইউনিয়ন শামলাপুর গ্রামকে শিক্ষার আলোয় আলোকিত করতে নিজের মেধা, মনন, সময়, শ্রম ও অর্থ ব্যয় করে চলেছেন মাস্টার মনজুর।
তিনি জেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও টেকনাফ উপজেলা সভাপতি, উপকূলীয় উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের নির্বাহী সম্পাদক, বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য।
এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষা, সমাজসেবামূলক প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত আছেন মাস্টার এম.এ মনজুর।
তিনি সীমান্তবর্তী উপজেলায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে মাদকের অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে কার্যকর পদক্ষেপ নেবেন বলে জানান। সেই সাথে তার সংসদীয় আসনকে সারাদেশের জন্য একটি মডেল আসন হিসেবে পরিণত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •