cbn  

বিশেষ প্রতিবেদক:
টেকনাফ উপজেলায় তথাকথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ হাবিব উল্লাহ হাবিব (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে।
আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, নিহত ব্যক্তি একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।
স্থানীয়দের ভাষ্য, তিনি জায়গা জমির ব্যবসা বাণিজ্য করতেন।
শনিবার (১ ডিসেম্বর) ভোর ৫টার দিকে উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শাপলাপুর পুরানপাড়া এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।
নিহত হাবিব উল্লাহ হাবিব স্থানীয় পুরানপাড়া এলাকার বাসিন্দা মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে।
এ ব্যাপারে টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভূক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী হাবিব উল্লাহকে শুক্রবার আটক করা হয়। তারপর তাঁকে নিয়ে মাদকদ্রব্য উদ্ধারের অভিযানে যায় পুলিশ। এ সময় ওত পেতে থাকা হাবিবের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে আহত অবস্থায় হাবিবকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
তিনি আরও জানান, এ সময় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছেন। তাঁরা হলেন উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজু, কনস্টেবল জিয়া ও বাদশা। এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ছয় হাজার ইয়াবা, দুটি দেশীয় বন্দুক ও ১৪টি কার্তুজ।
মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •