cbn  

বিশেষ প্রতিনিধি :

কক্সবাজারের টেকনাফে গত সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ যুবকের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ বাহারছড়ার নোয়াখালীয়াপাড়া বীচ উপকূল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে স্থানীয় তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ।

উদ্ধার মরদেহটি সাবরাং ইউনিয়নের আলীর ডেইল এলাকার মৃত ছিদ্দিক আহমদের ছেলে মোহাম্মদ হানিফ (২৮)’র। তিনি গত সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ ছিলেন বলে তার পরিবার সূত্র জানিয়েছে।

সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে টেকনাফের বাহারছড়ার নোয়াখালী পাড়া বীচে একটি মরদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করেন। স্থানীয়দের মাধ্যমে বিভিন্নখানে খবর নিয়ে মরদেহটি সাবরাং ইউনিয়নের আলীর ডেইলের মৃত ছিদ্দিক আহমদের ছেলে মোহাম্মদ হানিফ (২৮)’র বলে সনাক্ত করা হয়।

হানিফের স্বজনদের দাবী, গত ৮দিন ধরে হানিফ নিখোঁজ ছিল। তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। সম্ভাব্য সকল জায়গায় তাকে খোঁজ করা হয়, কিন্তু পাওয়া যাচ্ছিল না। হয়ত কোথাও বেড়াতে গেছে মনে করে থানায় ডায়রী করা হয়নি। নিখোঁজের আট দিনের মাথায় তার মরদেহটি সমুদ্র তীরে মিলেছে। তার বিরুদ্ধে কোন মামলা বা অভিযোগ নেই বলে দাবি করেন তারা। তার বাবা মা বেঁচে নেই, বিধবাসহ দু’বোন নিয়ে নানাবাড়ি থেকে পাওয়া জমিতে হতদরিদ্র অবস্থায় বাস করতো হানিফ।

বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ার হোসেন জানান, মরদেহটির সুরতহাল রিপোর্ট তৈরীর পর ময়নাতদন্তের জন্য কক্সসবাজা সদর হাসপাাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে। মরদেহের বুকেসহ কয়েক জায়গায় গুলির চিহ্ন রয়েছে। তিনি নিখোঁজ ছিলেন কিনা আমরা জানিনা। তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ওসি আনোয়ার আরো বলেন, ধারণা করা হচ্ছে কোন দুর্বৃত্ত গ্রুপের সাথে সংঘর্ষেে তার মৃত্যু হতে পারে। অন্য জায়গায় তাকে মেরে হয়ত নির্জন জায়গা পেয়ে সমুদ্রতীরে ফেলে গেছে হত্যাকারিরা। কারণ, আজ কেউ কোন গুলির আওয়াজ পেয়েছে বলে জানাতে পারেনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •