cbn  

এম.জুবাইদ.পেকুয়া :
নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিত তফসিল অনুসারে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্টিত হবে ৩০ ডিসেম্বর। এ নির্বাচনকে সামনে রেখে বি এন পি তথা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এর মনোনিত প্রার্থী জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম মহাসচিব, সাবেক যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ভারতের মেঘালয় রাজ্য সিলং এ অবস্থানরত আলহাজ¦ সালাউদ্দিন আহমেদের সহ ধর্মীনি এ্যাডভোকেট হাসিনা আহমেদ দলগতভাবে মনোনয়ন দেন। ধানের শীর্ষের মনোনয়ন নিয়ে তিনি মঙ্গলবার ২৭ নভেম্বও দুপুর ২ টার দিকে কক্সবাজার জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক কামাল হোসেনের কাছে মনোনয়ন ফরম জমা দেন। ওইদিন জেলার দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সাবেক সাংসদ এড হাসিনা আহমেদ। পরে হাসিনা আহমেদ তার নির্বাচনী এলাকা চকরিয়া পৌছলে নেতাকর্মীরা রাস্তার দুপাশে^ দাড়িয়ে এক নজরে দেখার জন্য জড়ো হয়। তিনি গাড়ীতে দাড়িয়ে রাস্তার দু পাশে অবস্থানরত নেতাকর্মীদেরকে হাতে নাড়িয়ে অবিবাদন জানায়। এদিকে সাবেক যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী আলহাজ¦ সালাউদ্দিন আহমেদের নিজ এলাকায় পেকুয়ায় ধানের শীর্ষ প্রতীক নিয়ে মনোয়ন প্রাপ্ত হাসিনা আহমেদের আগমন এর খবর এলাকায় পৌছায়। এই খবরে মুহুর্তের মধ্যে বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মী, দলের প্রিয় নেতা সালাহউদ্দিন আহমেদ বক্ত অবালবৃদ্ধা বণিতাদের মাঝে দেখা দেয় আনন্দ উল্লাস। এক নজরে দলের প্রিয় নেতা আলহাজ¦ সালাউদ্দিন আহমদের সহ ধর্মীনি হাসিনা আহমেদ কে দেখতে স্থানীয় নেতা-কর্মী, ব্যবসায়ী ও সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গরা জড়ো হয় রাস্তার দু’পাশে। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শতাধিক মটর শুভাযাত্রার মধ্যদিয়ে সাবেক সাংসদ হাসিনা আহমেদ পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের চৌমহুনী কলেজ গেইট এলাকায় পৌছালে উপস্থিত নেতাকর্মীরা তাকে সংবর্ধনা দেয়। দীর্ঘ বছর পর পেকুয়ায় বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনসহ সাধারণ জনতার ভালবাসায় সিক্ত হন হাসিনা আহমেদ।
উল্লেখ্য যে, ১৯৯৬ সন থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত দুই-দুইবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন বর্তমান বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির এই সাবেক যুগ্ম-মহাসচিব, যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী ও বর্তমান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আল্হাজ্ব সালাহউদ্দিন আহমদ। পরবর্তীতে আইনগত জটিলতার কারণে তিনি নির্বাচন করতে না পারায় বিএনপি’র মনোনয়ন লাভ করেন, তার সহ-ধর্মীনি এড্ হাসিনা আহমেদ। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্টিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি অংশ গ্রহন করে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন তিনি। এরই ধারাবাহিকতায় কক্সবাজার-১ চকরিয়া-পেকুয়ার আসনটি বিএনপি’র রিজার্ভ আসন হিসেবে রাজনৈতিক বোদ্ধামহলে পরিচিত। অধ্যাবধি চকরিয়া-পেকুয়ায় বিএনপি’র অবস্থান খুবই শক্তিশালী। গত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি তথা চারদলীয় জোট অংশ না নেওয়ায় এই আসনটিতে বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতা সংসদ সদস্য নিবাচিত হন জাপা সমর্থিত প্রার্থী আলহাজ¦ মোহাম্মদ ইলিয়াছ। এদিকে বিএনপি দূর্গ হিসেবে পরিচিত এই আসটিতে আগামাী একাদশ সংসদ নিবাচনে লড়বেন এড হাসিনা আহমেদ। এবারো বিএনপির নেতাকর্মীরা আসনটি ধরে রাখতে দীর্ঘদিন ধরে অব্যাহত রেখেছেন সংগঠন গুছানোর সব ধরনের কাজ।
জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির পশ্চিম জোন সভাপতি এম শাহনেওয়াজ আজাদ, উপজেলা বি এন পির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ইউসুপ রুবেল,উপজেলা যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি মাহবুব উল করিম, উপজেলা যুবদলের সেক্রেটারী কামরান জাদিদ মুকুট, শ্রমিকদল সভাপতি মুজিবুর হক চৌধুরী, মহিলা দলের সভানেত্রী সাবিনা ইয়াসমিন জিনু, স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা শাহেদসহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের দায়িত্বশীল নেতা-কর্মীরা এ প্রতিনিধি কে জানিয়েছেন, তাদের নেতা সালাহউদ্দিন আহমদের নেতৃত্বে কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনটি অতিতে যেমন ধরে রেখেছেন। আগামীতেও ধরে রাখতে মরনপন প্রস্তুত তারা। দলটির সকল পর্যায়ের নেতা কর্মীদের সাথে আলাপচারিতায় জানা গেছে, এবারো বিএনপি’র মনোনয়ন প্রাপ্ত সাবেক সংসদ সদস্য এড: হাসিনা আহমদ এম.পি। উনাকে দ্বিতীয়বারের মতো বিজয়ী করতে যা যা প্রয়োজন সব কিছুই করবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •