cbn  

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
রামু রাজারকুল আজিজুল উলূম মাদ্রাসা ও এতিমখানা’য়” আদর্শ দেশ ও জাতি গঠনে কাওমি মাদ্রাসার অবদান” শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার মাদ্রাসার ইসলামী সাহিত্য ও গবেষণা বিভাগের ব্যবস্থাপনায় আয়োজিত এই সেমিনারে প্রধান আলোচক ছিলেন মাদ্রাসার স্বনামধন্য পরিচালক আলহাজ্ব মাওলানা মুহসিন শরীফ। শিক্ষা পরিচালক মাওলানা আব্দুল খালেক কওছরের সভাপতিত্বে সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ইসলামী সাহিত্য ও গবেষণা বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক মুফতি মুহাম্মাদ দেলোয়ার হোছাইন। শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তিলাওয়াত করেন, ছাত্র হাফেজ মুহাম্মাদ বেলালুদ্দীন এবং ইসলামি সঙ্গীত পরিবেশন করেন, মুহাম্মদ মুহি উদ্দীন।
সেমিনারে শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন , মাওলানা শফিউল আলম, মাওলানা মুহাম্মদ তৈয়ব, মাওলানা এবাদুল হক, মাওলানা আব্দুল হক, মাওলানা বোরহান উদ্দিন, মাওলানা নুরুল আবচার, মাওলানা নজীবুল্লাহ, মাওলানা শহীদুল্লাহ, ক্বারী মুহাম্মদ হোছাইন। শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তৃতা করেন মুহাম্মদ নুরুল আলম, মুহিব্বুল্লাহ প্রমূখ।
সেমিনারে প্রধান আলোচক মাওলানা মুহসিন শরীফ তাঁর আলোচনায় বলেন, “আদর্শ সমাজ ও রাষ্ট্র গঠনে কওমি মাদ্রাসার অবদান অপরিসীম। এসব মাদ্রাসায় পড়াশুনা করে কেউ হয়ত ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, সচিব বা বিজ্ঞানী হয় না। অথবা কাউকে দেখা যায় না মন্ত্রীত্বের কোনো চেয়ারেও। কিন্তু দায়িত্বশীল এ মানুষগুলো যেন ন্যায়নিষ্ঠা, সততা ও ইনসাফের সাথে সমাজ ও দেশের স্বার্থে কাজ করেন সেদিকে গুরুত্বারোপ করেন কাওমি মাদ্রাসার ওলামায়ে কেরাম। এবং নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করে তাঁরা যেন কারো প্রতি জুলুম না করেন, দুর্নীতি, সুদ-ঘুষ ও দেশবিরোধী কাজে লিপ্ত না হন সে জন্য তাদেরকে সতর্ক করেন। কাওমি ওলামায়ে কেরাম বারবার তাদেরকে স্মরণ করিয়ে দেন আল্লাহর কথা। শরীয়তের বিধি-বিধানের কথা। হারাম-হালালের কথা। রাসুলের আনুগত্য ও নববী আদর্শের কথা। এতে করে তাদের মধ্যে ধীরে ধীরে পরিবর্তন ঘটতে থাকে। এবং একসময় এ পদধারী ব্যক্তিবর্গ আদর্শ সমাজ ও দেশ গঠনে সহযোগীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। এবং তাদের এই নৈতিক পরিশুদ্ধতার ক্ষেত্রে নেপথ্যের কারিগর হয়ে থাকেন কওমি মাদরাসার ওলামায়ে কেরাম।
তিনি বলেন, আমাদেরকে সংকীর্ণতা ও হীনম্মন্যতাকে পরিহার করতে হবে। উদার ও সুপ্রশস্ত মননশীল হতে হবে। এবং সমাজের সর্বস্তরের মানুষের কাছে সাহসিকতার সাথে দ্বীনের দ’ওয়াত পৌঁছে দিতে হবে। এবং ইহাই হচ্ছে আমাদের একমাত্র লক্ষ্য।
শেষে সভাপতির বিশেষ দু’আ ও মুনাজাতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •