cbn  
হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী : 
দ্বিনী শিক্ষার আলো ছড়াতে কক্সবাজারের রামুর গর্জনিয়া ইউনিয়নের দুর্গম মইন্যাকাটা গ্রামে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে দারুল আরকার মাদ্রাসা। ইউনিয়নের বোমাংখিল গ্রামের শিক্ষানুরাগী ছলিম উল্লাহ চৌধুরী মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠার
জন্য জমিদান করেন। এই প্রতিষ্ঠানটি বদলে দেবে গর্জনিয়ার গয়ালমারা, মইন্যাকাটা, নজুমাতবর পাড়া, পশ্চিম জুমছড়ি ও মরিচ্যাচর গ্রামের শিক্ষার চিত্র। আগে কয়েক কিলোমিটার দূরে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের হেঁটে স্কুলে যেতে হতো। এ কারণে অনেক শিক্ষার্থী ঝরে পড়ত। কষ্টের সীমা থাকত না অভিভাকদের। এখন তাঁদের আর কষ্ট নেই। ২০১৭ সনে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত ওই মাদ্রাসায় এখন অবহেলিত ১৩৫জন শিশু পড়াশোনা করছে। এটি পর্যায়ক্রমে মাধ্যমিকে উন্নীত হবে।
গত শনিবার দুপুরে মাদ্রাসাটি পরিদর্শন করেন- ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক (প্রশাসন) অধ্যক্ষ একেএম মাওলানা ফজলুর রহমান। পরে মাদ্রাসা মিলনায়তনে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, দুর্গমের এই মাদ্রাসায় অবকাঠামোগত উন্নয়ন হবে। মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষার মাধ্যমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কার্যক্রমকে তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ইসলামের প্রচার-প্রসার এবং ইসলামী মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৫ সালে ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। মাওলানা ফজলুর রহমান যোগ করেন,  বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের অতুলনীয় দৃষ্টান্ত। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে রোল মডেল। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু-কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ অভিষ্ট লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে।
মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও জমিদাতা সেলিম উল্লাহ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- ইসলামিক ফাউন্ডেশন কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মো.সরওয়ার আকবর, মাঠ কর্মকর্তা ফজল করিম, সিনিয়র ফিল্ড সুপারভাইজার মো.সাইফুদ্দিন খালেদ, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য আহসান উল্লাহ, মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য শাহারিয়ার ওয়াহেদ, বদিউল আলম স্মৃতি বিদ্যাপীঠের পরিচালক আজিজ মওলা, ইসলামিক ফাউন্ডেশন রামু কার্যালয়ের- মডেল কেয়ার টেকার মো.আবু বক্কর ছিদ্দিক, সাধারণ কেয়ার টেকার সাইফুল্লাহ মো. ফেরকান প্রমূখ।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •