cbn  

বিদেশ ডেস্ক :

সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত ৫ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিতে চায় সৌদি আরব। বৃহস্পতিবার দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল সৌদ আল মোজেব রিয়াদে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, এই পাঁচজনই খাশোগিকে ওষুধ প্রয়োগ ও হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

সৌদি অ্যাটর্নি জেনারেল দাবি করেন, গত ২ অক্টোবর ইনজেকশন প্রয়োগের পর ধস্তাধস্তির পর খাশোগিকে খুন করা হয়। পরে তার মরদেহ টুকরো টুকরো করে কনস্যুলেটের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার সৌদি অ্যাটর্নি জেনারেলের বিবৃতিতে বলা হয়, তুরস্ক ও সৌদি আরবের যৌথ তদন্ত দলের মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্য ও পাবলিক প্রসিকিউটরের তদন্তে দেখা গেছে সৌদি নাগরিক জামাল খাশোগি হত্যায় সন্দেহভাজনের সংখ্যা ২১ জনে পৌঁছেছে।

সৌদ আল মোজেব জানান, ১১ জনকে চিহ্নিত করে তাদের আদালতের মুখোমুখি করা হয়েছে। এছাড়া অন্য সন্দেহভাজনদের বিষয়ে অপরাধে তাদের সংশ্লিষ্টতা নিয়ে আরও তদন্ত চালানো হচ্ছে।

হত্যার নির্দেশ ও অপরাধ সংঘটনে জড়িত পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড চাওয়া হয়েছে বলে জানান সৌদি অ্যাটর্নি জেনারেল।

বিয়ের কাগজপত্র সংগ্রহ করতে গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তানবুল কনস্যুলেটে যাওয়ার পর নিখোঁজ হন যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা নির্বাসনে থাকা এবং সৌদি আরবের প্রভাবশালী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের কঠোর সমালোচক সাংবাদিক জামাল খাশোগি। প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে খাশোগিকে হত্যার কথা স্বীকার করে সৌদি আরব জানায়, ইস্তানবুলের কনস্যুলেটে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে খুন হন সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি। খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত ১৮ জনকে আটক ও ৫ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বহিস্কারের কথা জানায় সৌদি আরব। তবে গত মাসে আঙ্কারার পক্ষ থেকে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়, তুরস্কের তদন্তকারীদের জিজ্ঞাসাবাদের আগেই সন্দেহভাজনদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে পারে সৌদি আরব।

তুরস্কের তদন্তকারীরা প্রথম থেকেই দাবি করে আসছে, সৌদি আরব থেকে বিশেষ বিমানে আসা ১৫ জনের একটি হিট স্কোয়াড খাশোগিকে হত্যার পর মরদেহ সরিয়ে ফেলে। ওই স্কোয়াডে যুবরাজ বিন সালমানের ঘনিষ্ঠ কর্মকর্তারা থাকায় এই খুনের নির্দেশ দাতা হিসেবে বারবার তার নাম উঠে আসে। তবে বৃহস্পতিবার রিয়াদে সৌদি অ্যাটর্নি জেনারেল বলেছেন, ইস্তানবুল কনস্যুলেটে ‘আলোচনা ব্যর্থ হওয়ার পর’ মৃত্যুদণ্ড চাওয়া পাঁচজন খাশোগিকে ওষুধ প্রয়োগ ও টুকরো টুকরো করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

গত মাসে তুরস্কের প্রথম সরকারি বিবৃতিতে ইস্তানবুলের চিফ প্রসিকিউটর জানান, কনস্যুলেটে প্রবেশের পরই খাশোগিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে মরদেহ টুকরো টুকরো করা হয়। গত ১৯ অক্টোবর মধ্যরাতে প্রথমবারের মতো রিয়াদ খাশোগিকে হত্যার স্বীকারোক্তি দেয়। তবে রিয়াদের ব্যাখ্যায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানায় আঙ্কারা।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ানের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মিডলইস্ট আইকে বলেন, আঙ্কারার প্রবল আশঙ্কা খাশোগি হত্যায় সন্দেহভাজন ১৫ জনকে গ্রেফতার করে তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করবে সৌদি আরব। এই ঘটনায় সন্দেহভাজন ১৮ জনকে হেফাজতে নেওয়ার কথা এরইমধ্যে জানিয়েছেন সৌদি আরবের অ্যাটর্নি জেনারেল। আঙ্কারার পক্ষ থেকে জানানো হয় তাদের তদন্তে সন্দেহভাজন ১৫ অভিযুক্তকে ফেরত চায় তুরস্ক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •