চকরিয়া প্রতিনিধি:
কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের বর্তমান সাংসদ জাতীয় পার্টির এমপি মৌলভী মোহাম্মদ ইলিয়াছকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়েছেন তারই দলীয় নেতা কক্সবাজার জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক, চকরিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও স্বেচ্ছাসেবক পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা মো. সামসুল আলম।

বুধবার (১৪ নভেম্বর) ঢাকা বনানীস্থ দলীয় কার্যালয় থেকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে চমক সৃষ্টি করেছেন তিনি। বর্তমান সাংসদ মোহাম্মদ ইলিয়াছকে বিনা চ্যালেঞ্জে ছেড়ে দিতে নারাজ জাতীয় পার্টির তরুণ এই নেতা। তিনি মনোনয়ন নিশ্চিত করতে বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন বলেও জানিয়েছেন সাংবাদিকদের।

মনোনয়ন প্রত্যাশী জাতীয় পার্টির নেতা মো: সামসুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, মানুষ এখন অনেক সচেতন। ভোটাদের মাঝে উপলব্দি হয়েছে। চকরিয়া-পেকুয়াবাসী এখন পরিবর্তন চায়। এবারও জাতীয় পার্টি মহাজোটে থেকে নির্বাচন করবে। সেক্ষেত্রে চকরিয়া-পেকুয়া আসনে বর্তমান সাংসদ জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ ইলিয়াছ হলেও তিনি এলাকায় দৃশ্যমান তেমন উন্নয়ন করতে পারেনি। উন্নয়ন যা করেছে তা সাধারণ মানুষের কাছে পৌছাতে পারেনি।

তিনি আরও বলেন, এই আসনে লাঙ্গলের এমপি থাকায় নেতার্কমীদের উৎসাহ ছিলো বেশি। কিন্তু গত পাঁচ বছর ধরে তিনি দলকে সুসংগঠিত করার বদলে নিজের আখের গুছিয়েছেন এবং দলীয় পদ-পদবী নিয়ে স্বজনপ্রীতি করেছেন। একারণে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলায় জাতীয় পার্টির ত্যাগী নেতারা দলের কোন কমিটিতে নেই।

মনোনয়ন প্রত্যাশী সামসুল আলম আরও বলেন, বর্তমান এমপি মৌলভী মোহাম্মদ ইলিয়াছ দলীয় নেতাকর্মীদের কোন ধরণের মূল্যায়ন করেননি। উপরন্তু দলে যাদের ত্যাগ রয়েছে তাদেরকে তিনি কৌশলে সরিয়ে দিয়েছেন। যার দৃষ্টান্ত উদাহরণ, চকরিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টির আনোয়ারুল এহেসান চৌধুরী বুলু মিয়ার মতো জনপ্রিয় নেতাকে সরিয়ে দিয়েছেন। এধরণের অসংখ্যা সিনিয়র নেতাদের বর্তমানে দলে জায়গা হয়নি। একারণে তৃণমূল জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে এবং মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে তা জমা দিয়েছি। তাই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে এবং ত্যাগী নেতাদের দলে ফিরিয়ে আনতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান পল্লীবন্ধু এইচএম এরশাদের কাছে এই আসনে তাকে মনোনয়ন দেওয়ার জোর দাবী জানান। মনোনয়নপত্র জমাদানের সময় উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার জেলার সিনিয়র নেতৃবৃন্দ, কেন্দ্রীয় সদস্য মহিবুল্লাহ, কেন্দ্রীয় সদস্য এডভোকেট মোঃ তারেক, কক্সবাজার সদর উপজেলা সভাপতি মেহেরুজ্জমান ও চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক জহুরুল ইসলাম রেজা প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •