সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :

দেশী-বিদেশী পর্যটকদের আকর্ষনীয় স্পট কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা সকলের দায়িত্ব। কারন এটি শুধু কক্সবাজারবাসী কিংবা দেশের সম্পদ নয়, ১২০ কিলোমিটার অবিচ্ছেদ্য এই সৈকত পুরো বিশ^বাসীর সম্পদ। তাই সবাই মিলে পৃথিবীর দীর্ঘতম এ সৈকতকে যতœ করার অনুরোধ জানিয়েছেন কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান। শুক্রবার বিকেলে কক্সবাজার পৌরসভার সহযোগিতায় সৈকতের লাবণী পয়েন্টে বিডিক্লিন পরিবার আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (প্রটৌকল) এসএম সরওয়ার কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড.নাসরীন আহমেদ।

এছাড়া বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ একেএম ফজলুল করিম চৌধুরী ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন।

তিন দিনব্যাপী ১ হাজার ২শ’ জন সদস্য নিয়ে কক্সবাজারকে পরিষ্কারের অভিযানে থাকবে সংগঠনটি।

বিডিক্লিন চট্টগ্রামের বিভাগীয় সমন্বয়ক আদিল আহমেদ কবির বলেন, ৯ নভেম্বর থেকে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত তিনদিন কক্সবাজারে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করা হবে। প্রথমদিন আমরা ৫০টি টিমে ভাগ হয়ে সমুদ্র সৈকতের শৈবাল, লাবনী, সুগন্ধা, কলাতলী ও ইনানী পয়েন্টে কাজ করবো। দ্বিতীয় দিনে শহীদ মিনার থেকে শুরু হয়ে কলাতলী মোড় পর্যন্ত হোটেল অস্টার ইকোর আশপাশের সড়ক ও গলিপথ পরিষ্কার করবে টিমের সদস্যরা। এছাড়া আমাদের ৫০ জনের সার্ফিং টিম সাগরে পানিতে ভেসে আসা আবর্জনাও পরিষ্কার করবে। তৃতীয় দিন বিডিক্লিনের সকল সদস্য কক্সবাজার শহরের প্রধান সড়কসহ পরিষ্কার কার্যক্রম শুরু করবে এবং জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে লালদিঘী হয়ে বাসটার্মিনাল পর্যন্ত পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হবে।

সংগঠনটির প্রধান সমন্বয়ক ফরিদ উদ্দিন বলেন, কক্সবাজার বিডিক্লিনের ৬শ’ সদস্যের সঙ্গে ৬৩ জেলা থেকে যুক্ত হয়েছে আরো ৬শ’ সদস্য। তারা সবাই সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে এ কাজে অংশ নেচ্ছে।

তাছাড়া তিনদিনের এ আয়োজনে যুক্ত হওয়ার কথা রয়েছে কক্সবাজারে বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তা হিসেবে অবস্থানরত প্রায় ৪০ জন বিদেশি নাগরিক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •