প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
হোপ ফাউন্ডেশন কর্তৃক বাস্তবায়িত এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক পরিচালিত ডেভেলপিং মিডওয়াইভস প্রজেক্টের আওতায় প্রতি বছরের ন্যায় এই বছরও মিডওয়াইফারি ওপেন স্কুল ডে উদযাপন করা হয়। এইবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল উক্ত কোর্সে ভর্তির ফ্রি রেজিস্ট্রেশন এবং প্রচার প্রচারণা। এইবছর বাংলাদেশ সরকারের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ভর্তিচ্ছু ১১ জন ছাত্রীকে এই দিনে হোপ ফাউন্ডেশনের প্রাঙ্গনে ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করানো হয়। তাছাড়াও নয়টি উপজেলায় মাইকিং এর মাধ্যমে প্রচারের কাজ অব্যাহত আছে। গতকাল বুধবার (৭ নভেম্বর) দুপুরে রামুর চেইন্দাস্থ হোপ হাসপাতালের প্রাঙ্গণে অনু্িষ্ঠত উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মিজবাহ উদ্দীন। এতে সভাপতিত্ব করেন হোপ ফাউন্ডেশনের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডাইরেক্টর কেএম জাহিদুজ্জামান। মুল অনুষ্ঠানের পরে কোর্সের ছাত্রীদের অংশগ্রহণে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

 প্রধান অতিথির বক্তব্যে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মিজবাহ উদ্দীন বলেন, ‘আন্তর্জাতিকভাবে চ্যালেঞ্জিং এবং বিশেষায়িত সেবায় নিয়োজিত রয়েছে মিডওয়াইফরা। এটি একটি ব্যতিক্রমী সেবা। দায়িত্ববান এবং দক্ষ মিডওয়াইফরাই পারে মা ও শিশু মৃত্যুর হার এবং ঝুঁকি কমাতে। এই জন্য ভালোভাবে পড়াশোনাও করতে হবে। একই সাথে মিডওয়াইফদের অত্যন্ত দায়িত্ববান হতে হবে। তিনি হোপ ফাউন্ডেশনের এই “ফ্রি রেজিস্ট্রেশন ফর এডমিশন” উদ্যোগটি দেখে অভিভূত হন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, হোপ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. নিন্ময় বিশ্বাস, হোপ ফাউন্ডেশনের ডেভলপিং মিডওয়াইফ প্রজেক্টের ফ্যাকাল্টি শরিফুল কবির শাহীন, কোর্স কো-অর্ডিনেটর শারমীন নেছা, সিএমও মোঃ ইসমাঈল। এ্যাসিসটেন্ট প্রজেক্ট ম্যানেজার ইয়াছমিন আকতারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন এডমিন (ফাইন্যান্স) শামীম রেজা খানসহ প্রজেক্টের অন্যান্য কর্মকর্তারা।


সভাপতির বক্তব্যে হোপ ফাউন্ডেশনের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডাইরেক্টর কেএম জাহিদুজ্জামান বলেন, ‘মাতৃ ও শিশু মৃত্যুর হার কমাতে মিডওয়াইফদের অবদান সবচেয়ে বড় অবদান রয়েছে। সঠিকভাবে পড়াশোনা করে দক্ষভাবে তৈরি হরে মিডওয়াইফদের তা দেখিয়ে দিতে হবে। এই জন্য যা যা করা দরকার হোপ ফাউন্ডেশন সব করে যাবে। তবুও আমাদের দরকার সেবাধর্মী দক্ষ মিডওয়াইফ।’


এদিকে অতীতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান স্বাতন্ত্রভাবে মিডওয়াইফ কোর্সে ছাত্রী ভর্তি করালেও চলতি বছর থেকে সরকারিভাবেই মিডওয়াইফ কোর্সে ভর্তি হতে হবে। পরে সরকারি নিয়ম মতে প্রতিষ্ঠানগুলোতে নির্দিষ্ট সংখ্যক ছাত্রী ভর্তি করানো হবে। সেই লক্ষ্যে সরকারের ছাত্রী ভর্তি কার্যক্রমে সরকারের পক্ষ হয়ে কাজ করছে হোপ ফাউন্ডেশন। বর্তমানে মিডওয়াইফ কোর্সে ছাত্রী ভর্তির আবেদন চলছে। সেখানে সরকারিভাবে নির্ধারিত ফি নিয়ে আবেদনকারীদের অনলাইনে ভর্তি আবেদন করানো হচ্ছে। আগামী ১৭ নভেম্বর আবেদনের শেষ দিন। এর মধ্যে আগ্রহীদের হোপ ফাউন্ডেশনের কার্যালয়ে এসে ভর্তি আবেদন করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, এই প্রকল্পটি ব্রিটিশ সরকারের অনুদানে চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •