cbn  

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

৬ ও ৭ নভেম্বর, মঙ্গল ও বুধবার কক্সবাজার ডায়াবেটিস হাসপাতাল সংলগ্ন মাঠে দুই দিন ব্যাপী তাবলীগ জাময়াত’র ওয়াজাহাতী জোড় অনুষ্টিত হবে ৷ ৬ নভেম্বর ফজরের নামাজের পর আম বয়ানের মাধ্যমে জোড়ে কার্যক্রম শুরু হবে।

কক্সবাজার জেলা মারকাজ সূত্রে জানা গেছে, তাবলীগ জামায়াতের বিতর্কিত মাওলানা সা’দের এতায়াতপন্থীরা কাকরাঈলের শুরার সিদ্ধান্ত ও টঙ্গীর ইজতেমাকে উপেক্ষা করে দেশব্যাপী বিভিন্ন জেলায় বিচ্ছিন্নভাবে ইজতেমা করার অপতৎপরতা চালাচ্ছ ৷ এর ধারাবাহিকতায় এতায়াতপন্থীরা কক্সবাজারেও তথাকথিত এস্তেমার জন্য তারিখ ঘোষনা করলে কক্সবাজার জেলার তাবলীগের মুরব্বী ও সর্বস্তরের ওলামায়ে কেরাম আগামী ৬,৭ নভেম্বর ওয়াজাহাতী জোড় করার সিদ্ধান্ত নেন৷

ওজাহাতি জোড়ে কাকরাইলের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বী ও আহলে শুরার মাওলানা ক্বারী যুবাইর আহামদ, কাকরাইলের মুকিম মাওলানা ওমর ফারুক, মাওলানা আবদুল বারী সহ কাকরাইলের আরো অন্যান্য দায়িত্বশীল বিশিষ্ট আলেমগন বয়ান করবেন।

উক্ত ওজাহতি জোড় সফল করতে সকল সাথীদেরকে মেহনত করে বিশেষ করে কক্সবাজার জেলার সমস্ত ওলামায়ে কেরাম ও তাবলীগ জামায়াতের বিভিন্ন চিল্লা দেয়া সকল সাথী ভাইসহ সর্বস্তরের দ্বীনি ভাইদের উপস্থিত থাকার জন্য মুফতি মোরশেদ আলম অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি জানান, ইতিমধ্যে প্যান্ডেল নির্মাণ, শৌচাগার নির্মাণ, সুপেয় পানির ব্যবস্থা, বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা সহ আনুসঙ্গিক কার্যক্রমের প্রস্তুতি শতকরা ৭০ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •