cbn  

সিবিএন ডেস্ক:
রংপুরের অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের জামিন হয়নি। ৪ নভেম্বর রোববার রংপুর আদালতে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের উপস্থিতিতে আইনজীবীগন তাঁর বিরুদ্ধে দায়েরকরা মামলায় জামিনের আবেদন করে শুনানী করলে বিচারক আরিফা ইয়াসমিন মুক্তা শুনানী শেষে জামিন নামন্জুর করে তাঁকে জেল হাজতে প্রেরনের আদেশ দেন। মামলাটি শুনানীর জন্য আগামী ২২ নভেম্বর পরবর্তী দিন ধার্য্য করা হয়েছে। বিষয়টি এ প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন উক্ত আদালতের পিপি এডভোকেট আবদুল মালেক।

এদিকে, ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের উপর রংপুর আদালত প্রাঙ্গণে ছাত্রলীগ হামলা চালিয়েছে। এসময় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে উপর্যপুরি চড়-থাপ্পড়ের পাশাপাশি তার উপর জুতা ও ডিম নিক্ষেপ করে। সাংবাদিক মাসদুা ভাট্টিকে ‘চরিত্রহীন’ বলায় মানহানির মামলায় রংপুর আদালতে হাজির করা হলে রোববার বেলা সাড়ে বারোটার সময় আদালত চত্বরে ব্যারিস্টার মঈনুলের উপর হামলার ঘটনা ঘটে।

এছাড়া রংপুর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের প্রধান ফটক দখলে নিয়ে ঝাড়ু মিছিল ও বিক্ষোভ করছে আওয়ামী লীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। রোববার সকাল ১১টা থেকে তারা সেখানে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে।
পরে রংপুর অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের মামলার জামিন আবেদন শুনানীর সময় ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন নিজেই তাঁকে হামলা করে আহত করার কথা আদালতকে অবহিত করেন। কিন্তু আদালতের বিচারক ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের জামিন আবেদনে নামন্জুর আদেশ দিলেও তাঁকে হামলা করে আহত করার ব্যাপারে কোন আদেশ দেননি বলে ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের রংপুরের আইনজীবীরা জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •