চবি সংবাদদাতাঃ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ভর্তির ১বছর পরে আইন বিভাগের এক শিক্ষার্থীর জালিয়াতির প্রমাণ পাওয়া গেছে। আজ রবিবার (৪নভেম্বর) আইন অনুষদের গ্যালারি-৩ এ প্রথম বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা চলাকালে তাকে আটক করা হয়।

আটককৃত শিক্ষার্থীর নাম মো. মঈন।সে আইন বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। মঈনের পরিবর্তে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় আরেকজন অংশ নেয়।

চবি প্রশাসন সূত্রে জানা যায়,গত বছর কাগজপত্রে দেয়া ছবির সঙ্গে বর্তমানে মঈনের কোন মিল না পেয়ে অনুষদের পক্ষ থেকে প্রক্টরিয়াল বডিকে জানানো হয়। আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে মঈন স্বীকার করে যে, তিন লাখ টাকার চুক্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ব বিভাগের ২০০৮-০৯ শিক্ষাবর্ষের হোসাইন আল মাসুম তাকে জালিয়াতির মাধ্যমে ভর্তি করিয়ে দেয়। ‘ডি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় মোহাম্মদ মঈনের হয়ে ছবি পরিবর্তন করে মাসুম অংশ নিয়েছিলেন। প্রক্সির মাধ্যমে পরীক্ষা দিয়ে ৮৮.২২ নম্বর পেয়ে ওই ইউনিটে মেধাক্রমে ৭০ তম হন মঈন। ভর্তি পরীক্ষার পর মৌখিক সাক্ষাৎকারেও মঈনের পরিবর্তে প্রক্সিদাতা অংশ নেন।

প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী জানান, মঈনের হয়ে ভর্তি পরীক্ষায় যিনি অংশ নিয়েছেন তার পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি। ভর্তি জালিয়াতি চক্রের টাকার লেনদেনের বিষয়টি হোসাইন আল মাসুম দেখেন বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পেরেছি। ভর্তি জালিয়াতি চক্র সম্পর্কে মঈনকে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জুবাইর উদ্দিন /
০১৮৫০৬৫০৭৪১

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •