নিউইয়র্ক সংবাদদাতাঃ

আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের ২০১৯-২০২০ সালের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে।
নির্বাচনে এবার বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় পুনরায় সভাপতি হয়েছেন দেশকন্ঠ সম্পাদক দর্পণ কবীর।
সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন আজকাল পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক কক্সবাজারের শাহাব উদ্দিন সাগর।
এ ছাড়া সহ-সভাপতি হয়েছেন বেলাল আহমেদ (বর্তমান বাংলা), সহ সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন তোফাজ্জল লিটন (প্রথম আলো) এবং কোষাধ্যক্ষ হয়েছেন তাপস কুমার পাল (দেশকণ্ঠ)।
নির্বাহী সদস্য হয়েছেন- আবু বকর সিদ্দিক (আজকাল), শামসুল আলম (জনতার কণ্ঠ), শাহ ফারুক ( চ্যানেল আই অন লাইন) এবং মল্লিকা খান মুনা (অননিউজ ২৪ ডটকম)। তারাও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
উল্লেখ্য, আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাব এই প্রথমবারের মত নির্বাচন কমিশন গঠন করে ভোটের মাধ্যমে কমিটি নির্বাচন করলো।
গত ১ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) রাতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার জাকারিয়া মাসুদ জিকো, নির্বাচন কমিশনার আবু জাফর মাহমুদ, নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলামের হাতে মনোনয়নপত্র জমা দেন প্রার্থীরা।
নির্বাচন কমিশন যাচাই-বাছাই করে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন।
মনোনয়ণপত্র গ্রহণকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও আজকাল পত্রিকার প্রধান সম্পাদক জাকারিয়া মাসুদ জিকো বলেন, আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সদস্যদের মধ্যে সৌহার্দ্য-সম্প্রীতি নজির রয়েছে। এই নজির সবসময় থাকবে বলে বিশ্বাস করি। নির্বাচন করা গণতান্ত্রিক মানসিকতার প্রকাশ। এর পক্ষে সকলকে থাকা উচিত।
নির্বাচন কমিশনের সদস্য ও কলামিষ্ট আবু জাফর মাহমুদ বলেছেন, আশা করি, সকলের সহমত এবং উদার মানসিকতার পরিচয় দিয়ে প্রেসক্লাবের কর্মকর্তারা সংগঠনকে আরো এগিয়ে নিয়ে যাবেন। নির্বাচন কমিশনের অপর সদস্য এবং নারায়ণগঞ্জ জেলা সমিতির সভাপতি অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবে প্রথমবারের মত নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু হল। এর সঙ্গে থাকতে পেরে ভাল লাগছে। ভবিষ্যতের তারা নির্বাচন করে নেতা নির্বাচন করবেন-এই প্রত্যাশা রাখি।
এদিকে, আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত সভাপতি দর্পণ কবীর ও সাধারণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন সাগরসহ সকলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন কক্সবাজার নিউজ ডটকম (সিবিএন) এর বার্তা সম্পাদক ইমাম খাইর। বিশেষ করে কক্সবাজারের চকরিয়ার কৃতিসন্তান শাহাব উদ্দিন সাগরকে উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়েছেন।
সেই সাথে বিদেশের মাটিতে সংবাদ কর্মের মাধ্যমে বাংলাদেশের সুনাম ছড়িয়ে পড়ুক এটি প্রত্যাশা করেন ইমাম খাইর।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •